×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

জ্বলন্ত বাড়ির বারান্দা থেকে ফেলে দেওয়া শিশুকে লুফে নিলেন প্রাক্তন নৌসেনা

সংবাদ সংস্থা
ফোনিক্স, আমেরিকা১১ জুলাই ২০২০ ০১:২৮
কপাল জোরে বেঁচে গেল শিশু। ছবি: ইউটিউব থেকে নেওয়া।

কপাল জোরে বেঁচে গেল শিশু। ছবি: ইউটিউব থেকে নেওয়া।

প্রাক্তন এক মার্কিন নৌসেনার উপস্থিত বুদ্ধি এবং ক্ষিপ্রতায় বেঁচে গেল তিন বছরের একটি শিশু। তার মা তাকে তিন তলা থেকে নীচে ফেলে দিয়েছিলেন। ছুটে গিয়ে তাকে লুফে নেন প্রাক্তন মেরিন সদস্য ফিলিপ ব্ল্যাঙ্কস। প্রাণে বেঁচে যায় শিশুটি।

আমেরিকার অ্যারিজোনার ফিনিক্স শহরের ঘটনা। একটি তিন তলা বাড়ির উপরের তলায় আগুন লেগে যায়। সেখানে আটকে পড়েন র‍্যাচেল লং ও তাঁর তিন বছরের ছেলে এবং আট বছরের কন্যা। কিন্তু আগুনের মধ্যে দিয়ে তাঁদের বেরনোর কোনও রাস্তা ছিল না। ফলে নিজের সন্তানকে বাঁচাতে র‍্যাচেল তাকে বারান্দা থেকে ছুঁড়ে দেন। হয়তো তিনি চিন্তা করেন, ঘরে থাকলে আগুনে পুড়ে মৃত্যু অবধারিত। কিন্তু যদি তিন তলা থেকে ফেলে দেন, হয়তো বেঁচেও যেতে পারে।

তিন বছের একটি শিশুকে এভাবে তিন তলা থেকে ফেলে দিলে বাঁচার সম্ভাবনা কতটা, তা নিয়ে সন্দেহ থেকেই যায়। তবে রক্ষাকর্তা হয়ে সেখানে হাজির ছিলেন প্রাক্তন নৌসেনা ফিলিপ। আগুন দেখে আশপাশের লোকজনের সঙ্গে তিনিও সেখানে উপস্থিত হন। কিন্তু এভাবে বারান্দা থেকে একটি শিশুকে পড়তে দেখবেন ভাবতে পারেননি।

Advertisement

আরও পড়ুন: শিকারের উপর ঝাঁপিয়ে পড়তে ওৎ পেতে বসে মাউন্টেন লায়ন, খুঁজে বের করতে পারবেন?

আরও পড়ুন: কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় কনটেনমেন্ট জোনগুলি দেখে নিন

শিশুটিকে পড়তে দেখে তাঁর দীর্ঘদিনের প্রশিক্ষণ তৎক্ষণাৎ তাঁর ইন্দ্রীয়গুলিকে সক্রিয় করে তোলে। মুহূর্তের মধ্যে দৌড়ে তিনি বিল্ডিংয়ের নীচে পৌঁছে যান। মাটি ছোঁয়ার আগে ধরে ফেলেন তিন বছরের জেমসন লং-কে। সেখানে উপস্থিত কেউ মোবাইলে গোটা ঘটনা ক্যামেরাবন্দি করেন। পরে যা ভাইরাল হয়ে যায়।

দেখুন সেই ভিডিয়ো:

এই অগ্নিকাণ্ডে র‍্যাচেল মারা যান। তাঁর তিন বছরের শিশুর সঙ্গে আট বছরের কন্যাও বেঁচে গিয়েছে। দুই শিশুকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের দু’ জনেরই শরীরের কিছু জায়গা আগুনে ঝলসে গিয়েছে। হাসপাতালে তাদের চিকিৎসা চলছে।

Advertisement