Advertisement
০৮ ডিসেম্বর ২০২২

বাচ্চার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ল সিংহ, তার পরে কী হল, দেখুন সেই ভিডিও

আর পাঁচটা দিনের মতোই ছিল সে দিনটা। চিড়িয়াখানায় তখন বেশ ভিড়। মা-বাবার হাত ধরে কচিকাঁচারা গুটি গুটি পায়ে এগোচ্ছে এক একটা খাঁচার দিকে। বাঘ-সিংহি-শিম্পাঞ্জির বিশাল চেহারার দিকে অবাক হয়ে তাকিয়ে।

সংবাদ সংস্থা
শেষ আপডেট: ০৬ জুন ২০১৬ ১৬:৪১
Share: Save:

আর পাঁচটা দিনের মতোই ছিল সে দিনটা। চিড়িয়াখানায় তখন বেশ ভিড়। মা-বাবার হাত ধরে কচিকাঁচারা গুটি গুটি পায়ে এগোচ্ছে এক একটা খাঁচার দিকে। বাঘ-সিংহি-শিম্পাঞ্জির বিশাল চেহারার দিকে অবাক হয়ে তাকিয়ে। হলুদ রঙের হুডার পরে সিংহের খাঁচার গা ঘেঁষে দাঁড়িয়ে তখন দু’বছরের খুদেটি। মা-বাবার থেকে একটু দূরে দাঁড়িয়ে একমনে সিংহের দিকে তাকিয়ে রয়েছে সে। অপর প্রান্তে খাঁচার ভিতরের সিঁড়ি বেয়ে ধীরে ধীরে নেমে এলেন সিংহিমশাইও। সামনের সবুজ ঘাসে হাঁটু গেড়ে বসলেন তিনি। এ বার খুদের সঙ্গে কয়েক সেকেন্ড চোখাচোখি হল তার। মুহূর্তের নিস্তব্ধতা। টলমল পায়ে হলুদ হুডার ঘুরে দাঁড়াল তার মা-বাবার দিকে। ডান হাত তুলে পিছন ফিরে কী যেন বলতে গেল সে। হলুদ হুডারকে পিছন ফিরে ঘুরে দাঁড়াতে দেখে এ বার উঠে দাঁড়ালেন সিংহিমশাই। সামনে দু’পায়ে ভর করে এক লহমায় শিশুটির দিকে তেড়ে এলেন তিনি। তবে খুদের উপর ঝাপিয়ে পড়ার আগে খাঁচার সামনের কাচে আটকে গেল উদ্যত পা দু’টি। তবে তত ক্ষণে ঘাবড়ে গিয়ে খাঁচার সামনের উঁচু জায়গা থেকে পিছিয়ে এসেছে খুদে। হকচকিয়ে গিয়ে মাথা চুলকে-টুলকে একসা। ভাগ্যিস কাচের দেওয়াল ছিল সামনে। না হলে কী হতে পারত তা ভেবেই শিউ়রে উঠছেন চিড়িয়াখানার কর্মীরা। টোকিওর চিবা জুলজিক্যাল পার্কের এই ঘটনায় আপাতত সোশ্যাল মিডিয়ার সৌজন্যে ভাইরাল। চিড়িয়াখানার কর্মীরা অবশ্য আশ্বাস দিয়ে জানিয়েছেন, ভয়ের কোনও কারণ নেই। বাচ্চাদের দেখলেই তার সঙ্গে খেলার জন্য এ ভাবেই ঝাঁপিয়ে পড়েন সিংহিমশাই। তবে, সিংহিমশাইয়ের কাছে এটা খেলা মনে হলেও এক মুহূর্তের জন্য আত্মারাম খাঁচাছাড়া হয়ে গিয়েছিল ওই খুদের।

Advertisement

নীচে দেখুন সেই ভিডিও।

আরও পড়ুন

Advertisement

আমেরিকার সবচেয়ে ধনী মহিলা হয়ে গেলেন দেউলিয়া!

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.