×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৯ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

কোভিডকে হারিয়েছেন যাঁরা

পম্পা অধিকারী সিংহ
২৫ ডিসেম্বর ২০২০ ২০:০২
করোনা বাসা বেঁধেছিল অমিতাভের শরীরেও। —ফাইল চিত্র।

করোনা বাসা বেঁধেছিল অমিতাভের শরীরেও। —ফাইল চিত্র।

বছরটা শুরুই হয়েছিল এক আতঙ্ক নিয়ে। যদিও তখনও তা এ দেশে এসে পৌঁছয়নি। তবে গোটা দুনিয়া কাঁপছিল। আর ভারতে তা এসে পড়ল সেটা ৩০ জানুয়ারি। তার পর অতিমারির ঢেউ যেন আছড়ে পড়তে লাগল। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে লাগল হুহু করে। ইতিহাস বলে, প্রতি শতকে একটা না একটা মহামারি হানা দেয়ই। এ বার তো সব ছাপিয়ে একেবারে অতিমারি। কিন্তু অন্ধকার যতই গাঢ় হোক না কেন, সুড়ঙ্গের শেষে আলোর রেখা থাকেই। প্রতিষেধক ছাড়াই মারণ ভাইরাসকে হারিয়েছেন বহু মানুষ। সেই তালিকায় রয়েছেন অনেক মান্যগণ্যরাও।

অতিমারি নিয়ে সতর্কবার্তায় বার বার পরিচ্ছন্নতার কথা উঠে আসে। তা নিয়ে সাধারণ মানুষের জীবনে অনেক প্রতিবন্ধকতা থাকলেও, ‘প্রিভিলেজড’ মানুষদের তেমন সমস্যায় না পড়ারই কথা। কিন্তু উঁচু দেওয়ালের গণ্ডি পেরিয়ে মায়ানগরীর প্রাণকেন্দ্র ‘জলসা’-তেও ঢুকে পড়েছিল মারণ ভাইরাস। খোদ ‘শাহেনশা’ অমিতাভ বচ্চনের দেহেও সংক্রমণ বাসা বাঁধে। অমিতাভের পাশাপাশি ঐশ্বর্যা, আরাধ্যা এবং অভিষেক— বলিউডের ফার্স্ট ফ্যামিলির বাকি তিন সদস্যও কোভিডে আক্রান্ত হন। বাড়িতে না থেকে হাসপাতালে ভর্তি হন তাঁরা। সেখান থেকে সুস্থ হয়েই বাড়ি ফেরেন সকলে।

একই ভাবে দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ নোভেল করোনায় আক্রান্ত হন। কিন্তু করোনাকে হারিয়ে ফের কাজে ফেরেন অমিত। করোনা হার মানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি এবং বঙ্গ বিজেপি-র সভাপতি দিলীপ ঘোষের কাছেও।

Advertisement



গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

আরও পড়ুন: বছরের বেস্ট পাঁচজনকে বেছে নিল আনন্দবাজার ডিজিটাল​

আরও পড়ুন: আনন্দবাজার ডিজিটালের বিচারে ২০২০ সালের সেরা ১০টি বই​

ব্রিটেনের কেনসিংটন প্যালেস থেকে হোয়াইট হাউস এবং হলিউড গ্ল্যামারের প্রাণকেন্দ্র বেভারলি হিলসেও থাবা বসায় নোভেল করোনা। ডোনাল্ড ট্রাম্প, স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প, ব্রিটেনের প্রিন্স চার্লস, হলিউড অভিনেতা টম হ্যাঙ্কস, টেনিস তারকা নোভাক জকোভিচ, অ্যাথলিট উসেইন বোল্টও করোনায় আক্রান্ত হন। নিভৃতাবাস কাটিয়ে, সুস্থ হয়ে কাজে ফিরেছেন সকলেই।

Advertisement