×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

ফের ফোনের মাসুল বাড়ানোর ইঙ্গিত এয়ারটেল কর্তার

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি২৩ নভেম্বর ২০২০ ০৩:৫৪
সুনীল মিত্তল। ভারতী এয়ারটেলের চেয়ারম্যান।

সুনীল মিত্তল। ভারতী এয়ারটেলের চেয়ারম্যান।

ফের মোবাইলের মাসুল বাড়ানোর ইঙ্গিত দিলেন ভারতী এয়ারটেলের চেয়ারম্যান সুনীল মিত্তল। কবে, সেটা জানালেন না। বরং দাবি করলেন, পুরো শিল্প বা তাদের নিয়ন্ত্রক সেই সিদ্ধান্ত না-নিলে, তাঁরা একা তেমন কোনও পদক্ষেপ করতে পারেন না। তবে মাসুল বৃদ্ধিই যে এই মুহূর্তে সংস্থাগুলির টিকে থাকার জন্য সব থেকে বেশি জরুরি বিষয় এবং তাঁরা যে সেই পথে হাঁটার সিদ্ধান্ত নিয়ে নিয়েছেন, সেটা বুঝিয়ে দিলেন। সুনীলের বার্তা, বাজারের অবস্থা বিবেচনা করেই এগোনো হবে। তিনি এর আগেও ফোনের মাসুল বাড়ানোর পক্ষে সওয়াল করেছেন।

এক সাক্ষাৎকারে মিত্তলের দাবি, এখন মোবাইলের মাসুল যেখানে দাঁড়িয়ে, তাতে লাভজনক ভাবে ব্যবসা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। ফলে তা বাড়ানো জরুরি। তাঁর যুক্তি, টেলিকম শিল্পে নাগাড়ে লগ্নি করে যেতে হয়। প্রতি বছর পুঁজি ঢালতে হয়। যেটা বিদ্যুৎ, ইস্পাত, তেল শোধনের মতো কারখানা তৈরির ক্ষেত্রে হয় না। তাঁর দাবি, টেলিকম সংস্থাগুলির প্রতি মুহূর্তে ব্যবসা চালিয়ে যেতেই বিপুল টাকা লাগে। কখনও পরিষেবা দেওয়ার জন্য স্পেকট্রাম কিনতে, নেটওয়ার্ক, ফাইবার, রেডিও, টাওয়ার তৈরি করতে, কখনও প্রযুক্তিগত ভাবে আরও উন্নত হতে, কোনও সময় আরও বেশি অঞ্চলকে পরিষেবা এলাকার অন্তর্ভুক্ত করতে বা ক্ষমতা বাড়াতে। এই সূত্রেই এয়ারটেলের গ্রাহক পিছু আয় বাড়ানোর লক্ষ্যের কথা তুলে ধরেন তিনি।

 আরও পড়ুন: রফতানির চিন্তা বাড়াচ্ছে ইস্পাতের দর ও কন্টেনার

Advertisement

গত অগস্টেও সুনীল বলেছিলেন, মাসে ১৬০ টাকা দিয়ে ১৬ জিবি ডেটা ব্যবহার দুর্ভাগ্যজনক। গ্রাহকদের উদ্দেশে বার্তা ছিল, ‘‘হয় এই টাকায় মাসে ১.৬ জিবি ডেটা ব্যবহার করুন, নয়তো বেশি গুনতে তৈরি থাকুন।’’ এ বারও মাসে গ্রাহক পিছু আয় ৩০০ টাকা হওয়ার পক্ষে সওয়াল করে তাঁর যুক্তি, টিকে থাকার মতো ব্যবসার মডেল এটাই। সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিকে সংস্থার গ্রাহক পিছু আয় ছিল ১৬২ টাকা।

আরও পড়ুন: পাঁচ বছরে তেল শোধন ক্ষমতা দ্বিগুণ করতে চান মোদী

 

Advertisement