বিএসএনএলে স্বেচ্ছাবসরের (ভিআরএস) প্রস্তাবের সংখ্যা শনিবার ৭৯,০০০ ছাড়িয়েছে বলে সংস্থা সূত্রের খবর। যদিও এখনও অক্টোবরের বেতন পাননি রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিকম সংস্থাটির কর্মী-আধিকারিকেরা। সংস্থার অস্থায়ী কর্মীদের বেতন বকেয়া ১০ মাস। এই অবস্থায় অবিলম্বে বেতন-সহ একগুচ্ছ দাবিতে আগামী সপ্তাহে অস্থায়ী কর্মীদের পাশাপাশি আন্দোলনে নামছেন বিএসএনএলের স্থায়ী কর্মী ও আধিকারিকেরাও।

১০টি কর্মী ইউনিয়ন ও অ্যাসোসিয়েশনের যুক্ত মঞ্চ অল ইউনিয়ন্স অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েশন্স অব বিএসএনএল (এইউএবি) ২০-২২ নভেম্বর দেশ জুড়ে সংস্থার সদর দফতর, সার্কল ও আঞ্চলিক অফিসে রিলে অনশনের ডাক দিয়েছে। সংগঠনটির রাজ্যের আহ্বায়ক অনিমেষ মিত্র এ দিন জানান, পাশাপাশি এ রাজ্যে ১৯ নভেম্বর ধর্মঘট করবেন দীর্ঘ দিন বেতন না পাওয়া অস্থায়ী ও ঠিকা কর্মীরা। 

বেতন ছাড়াও এইউএবি-র দাবিগুলির মধ্যে অন্যতম হল— ভিআরএসের পরে সংস্থা পরিচালনার রূপরেখা প্রকাশ, দ্রুত ৪জি পরিষেবা চালু করা, স্বেচ্ছাবসর নিয়ে কয়েকটি ক্ষেত্রে সংশয় দূর করা, অবসরের বয়স ৬০ বছরের কম না-করা ইত্যাদি। 

উল্লেখ্য, যাঁরা ভিআরএসের প্রস্তাব জমা দিয়েছেন, তাঁদের প্রাপ্য অবসরকালীন সুবিধার হিসেব-নিকেশগুলি দ্রুত সারতে সম্প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন বিএসএনএলের  সিএমডি পি কে পুরওয়ার। সুষ্ঠু ভাবে পুরো বিষয়টি রূপায়ণের জন্য বিভিন্ন স্তরে কমিটিও গড়তে বলেছেন তিনি।