Advertisement
০১ অক্টোবর ২০২২
Nirmala Sitharaman

Central Government: পরিকাঠামোয় ৮০,০০০ কোটি ঋণ রাজ্যগুলিকে

ঋণের সুবিধা নিতে সংশ্লিষ্ট প্রকল্পগুলির কথা সবিস্তারে বর্ণনা করে আবেদন জানাতে হবে রাজ্যগুলিকে।

ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ১১ জুলাই ২০২২ ০৬:৩০
Share: Save:

গত বাজেটে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন ঘোষণা করেছিলেন, ২০২২-২৩ অর্থবর্ষে পরিকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পে রাজ্যগুলিকে মোট ১ লক্ষ কোটি টাকা সুদবিহীন ঋণ দেবে কেন্দ্র। যা শোধ করতে হবে ৫০ বছরে। সেই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এ বার ৮০,০০০ কোটি টাকা ঋণের কথা জানিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করল কেন্দ্রের খরচ সংক্রান্ত দফতর। সেখানে বলা হয়েছে, ঋণের সুবিধা নিতে সংশ্লিষ্ট প্রকল্পগুলির কথা সবিস্তারে বর্ণনা করে আবেদন জানাতে হবে রাজ্যগুলিকে।

শিল্প ক্ষেত্রে কাঁচামালের জোগান এবং তৈরি পণ্যের সরবরাহকে মসৃণ ও গতিশীল করতে সারা দেশের শিল্প তালুকগুলিকে পরিবহণ পরিকাঠামোর মাধ্যমে জুড়তে চাইছে কেন্দ্র। তার জন্য হাতে নিয়েছে পিএম-গতিশক্তি প্রকল্প। ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে রাজ্য স্তরে পিএম-গতিশক্তির সঙ্গে যুক্ত প্রকল্পকে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। এর পাশাপাশি, প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনা (৪০০০ কোটি টাকা), ডিজিটাল ব্যবস্থার উন্নতি (২০০০ কোটি), নগরোন্নয়ন (৬০০০ কোটি) এবং অপটিক্যাল ফাইবার (৩০০০ কোটি) পাতার ক্ষেত্রেও ঋণের সুবিধা পাবে রাজ্যগুলি। এ ছাড়া আর্থিক সংস্কার সংক্রান্ত আইন প্রণয়নের ক্ষেত্রে ঋণ পাবে রাজ্য। রাজ্যগুলির হাতে থাকা রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা বিক্রি কিংবা বিলগ্নিকরণ, ওই সব সংস্থার উদ্বৃত্ত সম্পত্তি বিক্রি বা সেখান থেকে আয় বাড়ানোর রাস্তা তৈরিতে (মনিটাইজ়েশন) উৎসাহ দিতে ধরা হয়েছে ৫০০০ কোটি টাকার সুদবিহীন ঋণ। রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাকে শেয়ার বাজারে নথিভুক্ত করার ক্ষেত্রেও প্রকল্পের সুবিধা পাওয়া যাবে।

ঋণ পেতে কী করতে হবে রাজ্যকে? বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, চলতি অর্থবর্ষে নেওয়া পরিকাঠামো প্রকল্পের কথা জানিয়ে কেন্দ্রের খরচ সংক্রান্ত দফতরের কাছে আবেদন জানাতে হবে। উল্লেখ করতে হবে প্রকল্পের নাম, আনুমানিক খরচ, সময়। জানাতে হবে প্রকল্পের গুরুত্বও।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.