• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

লকডাউনের জের, ভারতের বাজারে ৬টি মিউচুয়াল ফান্ড ‘ফ্রিজ’ করল ফ্র্যাঙ্কলিন টেম্পলটন

Franklin
ভারতের বাজারে ছ'টি মিউচুয়াল ফান্ড ফ্রিজ করে দিল ফ্র্যাঙ্কলিন টেমপ্লেশন।

করোনাভাইরাসের প্রকোপে এবং তার মোকাবিলায় লকডাউনের জেরে সারা বিশ্বেই শেয়ার বাজারে ধস নেমেছ। তাল মিলিয়ে পড়ছে মিউচুয়াল ফান্ড, বন্ডের দামও বড়সড় পতনের মুখে পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে ভারতের বাজারে ছ’টি মিউচুয়াল ফান্ড ‘ফ্রিজ’ করে দিল মার্কিন সংস্থা ফ্র্যাঙ্কলিন টেম্পলটন। মার্কিন সময় বৃহস্পতিবার এই ঘোষণা করে সংস্থার তরফে বলা হয়েছে, বিনিয়োগকারীদের মুলধন বাঁচাতেই এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এই সিদ্ধান্তের জেরে ২৩ এপ্রিল থেকে এই ছ’টি মিউচুয়াল ফান্ডে আর কোনও বিনিয়োগ করা যাবে না। পাশাপাশি এর ফলে ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের ৩০৮০০ কোটি টাকা আটকে গেল। আবার ২৩ তারিখের পরে এই ফান্ডে লেনদেন হলেও তা কার্যকর হবে না বলে জানিয়েছে ফ্র্যাঙ্কলিন টেম্পলটন। মেয়াদ সম্পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত এই ফান্ডে বিনিয়োগ করা অর্থ ‘লক’ করা থাকবে, অর্থাৎ আটকে থাকবে।

করোনাভাইরাস এবং লকডাউনের জেরে যে ভাবে ভারত-সহ বিশ্বের অর্থনীতি ক্রমশ বেহাল হয়ে পড়ছে, তাতে এ ছাড়া আর কোনও বিকল্প ছিল না বলে জানিয়েছে সংস্থা। তাদের বক্তব্য, করোনাভাইরাস ও লকডাউনের জেরে যে কোনও সময় ধসে পড়তে পারে যে কোনও ক্ষেত্র। তাই বিনিয়োগকারীদের টাকা সুরক্ষিত রাখা এবং মেয়াদ শেষে টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য এটাই একমাত্র বিকল্প ব্যবস্থা।

আরও পড়ুন: বিশ্রী ব্যর্থতা ঢাকার জন্যই আপনার এত কৌশল: ফের তীব্র আক্রমণে ধনখড়

ভারতের বাজারে বন্ধ করা মিউচুয়াল ফান্ডগুলি হল ফ্র্যাঙ্কলিন ইন্ডিয়া লো ডিউরেশন ফান্ড, ফ্র্যাঙ্কলিন ইন্ডিয়া ডায়নামিক অ্যাকচুয়াল ফান্ড, ফ্র্যাঙ্কলিন ইন্ডিয়া ক্রেডিট রিস্ক ফান্ড, ফ্র্যাঙ্কলিন ইন্ডিয়া শর্ট টার্ম ইনকাম প্ল্যান, ফ্র্যাঙ্কলিন ইন্ডিয়া আলট্রা শর্ট বন্ড ফান্ড এবং ফ্র্যাঙ্কলিন ইন্ডিয়া ইনকাম অপর্চুনিটিজ ফান্ড। নতুন করে এই ফান্ডগুলিতে আর বিনিয়োগ করা যাবে না।

আরও পড়ুন: কেরলে মৃত ৪ মাসের শিশু, দেশে ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্ত প্রায় ১৭০০

এক লপ্তে ছ’টি ফান্ড বন্ধ করে দেওয়ায় শুধু ভারতীয় মিউচুয়াল ফান্ডের বাজার খারাপ হবে তাই নয়, দেশের পুরো অর্থনীতিতেই তার প্রভাব পড়বে বলেই মনে করছেন অর্থনীতিবিদরা। তাঁদের যুক্তি, শুধু সাধারণ বিনিয়োগকারীরাই নন, অনেক সংস্থাও এই মিউচুয়াল ফান্ডে বিপুল পরিমাণ অর্থ বিনিয়োগ করে রেখেছে। তাঁদের টাকা আটকে যাওয়ায় তার প্রভাব আরও সুদুরপ্রসারী হতে পারে। 

 

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণছবিভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকাকোন দিনকোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন