×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ মে ২০২১ ই-পেপার

চুক্তি নিয়ে ফিউচারকে এগোতে মানা আদালতের

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ১৯ মার্চ ২০২১ ০৮:০১
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

রিলায়্যান্স ইন্ডাস্ট্রিজ়ের সঙ্গে ফিউচার গোষ্ঠীর ২৪,৭১৩ কোটি টাকার চুক্তি আটকে গেল দিল্লি হাইকোর্টের নির্দেশে। আমেরিকার ই-কমার্স সংস্থা অ্যামাজ়নের দায়ের করা মামলার শুনানিতে বৃহস্পতিবার ওই চুক্তি নিয়ে কিশোর বিয়ানির ফিউচারকে এগোতে বারণ করলেন বিচারপতি জে আর মিধা। এর আগে একই নির্দেশ দিয়েছিল সিঙ্গাপুর আন্তর্জাতিক সালিশি কেন্দ্র। ওই নির্দেশ কার্যকর করার আবেদন জানিয়ে দিল্লি হাইকোর্টে যায় জেফ বেজোসের সংস্থা। সালিশি আদালতের স্থগিতাদেশই বহাল রাখল হাইকোর্ট।

মুকেশ অম্বানীর রিলায়্যান্স রিটেল বিয়ানির খুচরো ব্যবসাকে (ফিউচার রিটেল) কিনে নিতে চুক্তিবদ্ধ হতেই ফিউচারের বিরুদ্ধে চুক্তি ভাঙার অভিযোগ তোলে অ্যামাজ়ন। আদালতে নালিশ জানায়, বিয়ানির সংস্থায় তাদের লগ্নির শর্ত ছিল ওই গোষ্ঠীর খুচরো ব্যবসাকে রিলায়্যান্সের মতো কোনও সংস্থার কাছে বেচা চলবে না। আর তার পরেই শুরু হয় অ্যামাজ়ন-ফিউচারের দীর্ঘ আইনি লড়াই। বিয়ানির অবশ্য দাবি ছিল, অন্যায় ভাবে বাধা দিচ্ছে অ্যামাজ়ন।

তবে এ দিন দিল্লি হাইকোর্ট তোপ, ফিউচার ইচ্ছে করেই আপৎকালীন সালিশি কেন্দ্রের নির্দেশ না-মেনে রিলায়্যান্সের সঙ্গে চুক্তি সম্পূর্ণ করার পথে এগিয়েছে। তার পরেই বিয়ানি-সহ গোষ্ঠীর অন্যান্য কর্তাদের এক মাসের মধ্যে সম্পত্তির তথ্য জানিয়ে হলফনামা দিতে বলে। সম্পত্তি বাজেয়াপ্তেরও নির্দেশ দেয়। প্রধানমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলে দু’সপ্তাহের মধ্যে ২০ লক্ষ টাকা দিতে বলে। কারণ দেখাতে বলে, সালিশের নির্দেশ ভঙ্গের জন্য কেন বিয়ানিদের তিন মাসের জন্য সিভিল প্রিজ়নে আটক করা হবে না। যেখানে বিচারাধীন বন্দিদের সঙ্গে অভিযুক্তদের রাখা হয় না এবং জেলে থাকার খরচ বহন করে মামলার প্রতিপক্ষ। হাইকোর্ট ফিউচারকে বলেছে, বিভিন্ন কর্তৃপক্ষকে তারা যেন চুক্তির অনুমোদন ফিরিয়ে নিতে বলে।

Advertisement
Advertisement