• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘ফেয়ার’ বর্জনেও ‘আনফেয়ার’! ইমামির নাম চুরির অভিযোগ এইচইউএল-এর বিরুদ্ধে

HUL
ছবি সংগৃহীত।

বর্ণবিদ্বেষের প্রতিবাদে পণ্যের নামবদল। ‘সৌন্দর্য বৃদ্ধি’র ক্রিমের নাম থেকে ‘ফেয়ার’ শব্দ ছেঁটে ফেলার প্রতিযোগিতা। কিন্তু সেখানেও ‘আনফেয়ার প্র্যাকটিস’-এর অভিযোগ। হিন্দুস্তান ইউনিলিভার লিমিটেড (এইচইউএল)-এর বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার এই অভিযোগ তুলল ইমামি। ইমামির তৈরি একটি পণ্যের যা নাম রাখা হয়েছে, বৃহস্পতিবার এইচইউএল সেই নামেই নিজেদের একটি ক্রিমের নামকরণ করেছে, অভিযোগ এমনই।

ইমামির তরফ থেকে এ দিন প্রেস বিজ্ঞপ্তি জারি করে এইচইউএল-এর বিরুদ্ধে নাম চুরির অভিযোগ আনা হয়েছে। এ দিন স্টক এক্সচেঞ্জকে চিঠি দিয়ে এইচইউএল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন যে, ‘ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি’-র মেন’স রেঞ্জের নাম বদলে ‘গ্লো অ্যান্ড হ্যান্ডসম’ রাখা হবে। সংবাদমাধ্যমকেও এইচইউএল-এর তরফ থেকে এ দিন সে কথা জানানো হয়েছে বলে ইমামির প্রেস বিবৃতিতে লেখা হয়েছে।

এইচইউএল-এর পণ্যের এই নামকরণেরই তীব্র বিরোধিতা করেছে ইমামি। সংস্থার তরফে প্রকাশ করা বিবৃতিতে এ দিন লেখা হয়েছে, ‘‘পুরুষদের গ্রুমিং প্রোডাক্ট ‘ফেয়ার অ্যান্ড হ্যান্ডসম’-এর নির্মাতা ইমামি লিমিটেড পুরুষদের সৌন্দর্যের ক্রিমের বাজারকে নেতৃত্ব দেয়।’’ ইমামি আরও দাবি করেছে, ‘‘আমরা এক সপ্তাহ আগে ডিজিটাল মাধ্যমে আমাদের ব্র্যান্ড ‘ইমামি গ্লো অ্যান্ড হ্যান্ডসম’-এর সূচনা করেছি এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে প্রয়োজনীয় আবেদনও জমা দেওয়া হয়েছে।’’ তার পরেও কী ভাবে এইচইউএল তাদের ক্রিমের একই নামকরণ করে স্টক এক্সচেঞ্জকে চিঠি দিতে পারে? প্রশ্ন ইমামি কর্তৃপক্ষের।

আরও পড়ুন: শক্তি বাড়ছে বায়ুসেনার, ৩৩টি রুশ যুদ্ধবিমান কিনছে ভারত

এইচইউএল-কে কটাক্ষ করে ইমামির তরফে বলা হয়েছে, এইচইউএল-এর ‘অসাধু ব্যবসায়িক নীতি’ (আনফেয়ার বিজনেস প্র্যাকটিস) দেখে ইমামি কর্তৃপক্ষ বিস্মিত নন। এ বিষয়ে আইনি পরামর্শ নেওয়া হচ্ছে বলেও জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: ৩১ জুলাই পর্যন্ত বিনিয়োগ-প্রিমিয়ামেও কর ছাড়, মেয়াদ বাড়াল আয়কর দফতর

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন