Advertisement
১৯ জুলাই ২০২৪
Foreign Investments

দেশে ফেরার পথে বিদেশি সংস্থার লগ্নি

চলতি বছরে অবশ্য বিদেশি লগ্নিকারীরা এ দেশে নিট হিসাবে শেয়ার কেনার থেকে বেচেছে (২১ জুন পর্যন্ত ১১,১৯৪ কোটি টাকা) বেশি। গত মার্চে ৩৫,০০০ কোটি টাকা ঢেলেছিল।

—প্রতীকী চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৪ জুন ২০২৪ ০৮:১২
Share: Save:

গত দু’মাস তারা মুখ ফিরিয়ে রেখেছিল। ভোটের ফল বেরোতেই এ মাসে ভারতের শেয়ার বাজারে ফিরছে বিদেশি লগ্নিকারী সংস্থাগুলি। পরিসংখ্যান বলছে, চলতি মাসে এখনও পর্যন্ত ১২,১৭০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে তারা। যার প্রধান কারণ তৃতীয় দফার মোদী জমানায় সংস্কার এবং আর্থিক বৃদ্ধির গতি বহাল থাকার প্রত্যাশা।

চলতি বছরে অবশ্য বিদেশি লগ্নিকারীরা এ দেশে নিট হিসাবে শেয়ার কেনার থেকে বেচেছে (২১ জুন পর্যন্ত ১১,১৯৪ কোটি টাকা) বেশি। গত মার্চে ৩৫,০০০ কোটি টাকা ঢেলেছিল। কিন্তু এপ্রিলে বিক্রি করে ৮৭০০ কোটি টাকার শেয়ার। মে মাসে ভোট চলাকালীন সরকার গঠন নিয়ে অনিশ্চয়তায় ভুগে ফের তুলে নেয় ২৫,৫৮৬ কোটি।

বিশেষজ্ঞদের মতে, লগ্নিকারীরা সব সময় কেন্দ্রে স্থায়ী এবং পোক্ত সরকার চায়। যাতে সংস্কার বা নীতি আটকে না যায়। সেই দিক থেকে বাজার হতাশ। বিজেপির নেতৃত্বে ক্ষমতায় এনডিএ-র জোট। তবে তার পরেও বিদেশি লগ্নি ফেরার অন্যতম কারণ হিসেবে উপদেষ্টা ফিডেলফোলিয়ো-র প্রতিষ্ঠাতা কিশলয় উপাধ্যায় বলছেন, বাজার মনে করছে স্থিতিশীল হবে সরকার। মোদী সরকারও পুরনো পদক্ষেপগুলি চালিয়ে যাবে। যদিও চড়া বাজারে পুঁজির প্রবাহ নিয়ন্ত্রিত থাকবে, দাবি মোজো-পিএমএসের চিফ ইনভেস্টমেন্ট অফিসার সুনীল দামানিয়ার। তাঁর মতে, বিদেশি লগ্নি ফেরার অন্যতম কারণ চিনের অর্থনীতির ধাক্কা খাওয়াও। তবে এখনও তারা নির্দিষ্ট কিছু শেয়ার কিনতেই আগ্রহী। মর্নিংস্টার ইনভেস্টমেন্ট রিসার্চ ইন্ডিয়ার অ্যাসোসিয়েট ডিরেক্টর-ম্যানেজার রিসার্চ হিমাংশু শ্রীবাস্তবের দাবি, আসন্ন বাজেটে আর্থিক বৃদ্ধিকে ত্বরান্বিত করার প্রস্তাব থাকবে, এই অনুমানও বিদেশ লগ্নিকে টেনে আনছে। ঋণপত্রের বাজারে অবশ্য লাগাতার পুঁজি ঢালছে তারা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Investment Indian Stock market
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE