• নিজস্ব প্রতিবেদন 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কোর্টের রায় চ্যালেঞ্জের ইঙ্গিত ফিউচারের

Retail
ছবি: সংগৃহীত।

রিলায়্যান্স রিটেল ভেঞ্চার্স-কে (আরআরভিএল) ফিউচার গোষ্ঠীর কিছু ব্যবসা বিক্রির বিরুদ্ধে সিঙ্গাপুরের সালিশি আদালতে করা মামলায় এক ধাপ এগিয়েছে অ্যামাজ়ন। আদালত জানিয়েছে, চূড়ান্ত রায় ঘোষণা না-হওয়া পর্যন্ত ফিউচার গোষ্ঠী ওই সব ব্যবসা বিক্রি করতে পারবে না। সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করার ইঙ্গিত দিয়েছে ফিউচার গোষ্ঠীর সংশ্লিষ্ট সংস্থা ফিউচার রিটেল (এফআরএল)। দেশের আইন মেনেই ওই অধিগ্রহণের পথে চলার দাবি করে রিলায়্যান্সও সেই পরিকল্পনা এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়েছে। এই চাপানউতোরের মধ্যে সোমবার রিলায়্যান্স ও ফিউচার গোষ্ঠীর বিভিন্ন সংস্থার শেয়ার দরও কিছুটা পড়ে। 

সম্প্রতি কিশোর বিয়ানির ফিউচার গোষ্ঠীর খুচরো, পাইকারি, গুদাম ও পণ্য পরিবহণ ব্যবসা ২৪,৭১৩ কোটি টাকায় অধিগ্রহণের কথা জানায় মুকেশ অম্বানীর আরআরভিএল। তাতেই আপত্তি তুলে চুক্তিভঙ্গের অভিযোগে ফিউচারের বিরুদ্ধে সিঙ্গাপুরের আদালতের দ্বারস্থ হয় অ্যামাজ়ন। তাদের দাবি, গত বছর ফিউচারের অনথিভুক্ত সংস্থা ফিউচার কুপনসের ৪৯% অংশীদারি কিনেছিল তারা। আবার ফিউচার রিটেলের ৭.৩% অংশীদারি রয়েছে ফিউচার কুপনসের হাতে। সেই সূত্রেই দু’পক্ষের চুক্তি হয়, তিন থেকে ১০ বছরের মধ্যে ফিউচারের অংশীদারি বিক্রি হলে তারাই প্রথম কেনার সুযোগ পাবে। 

আদালতের নির্দেশ খতিয়ে দেখার কথা জানিয়ে এফআরএলের দাবি, তারা ভারতের আইন মেনেই সমস্ত চুক্তি করেছে। অ্যামাজ়ন যে চুক্তিভঙ্গের অভিযোগ তুলেছে তার অংশীদার ছিল না তারা। রিলায়্যান্সের সঙ্গে তাঁদের ব্যবসার হাতবদল সংক্রান্ত পরিকল্পনা দ্রুত সম্পন্ন করার পথে এগোতে যথাযথ পদক্ষেপের ইঙ্গিত দিয়েছে বিয়ানির সংস্থাটি। 

পরিকল্পনা মাফিক পথেই এগোনার ইঙ্গিত দিয়ে মুকেশের আরআরভিএলেরও বক্তব্য, যথাযথ আইনি পরামর্শ নিয়ে ভারতীয় আইন মেনেই ফিউচার রিটেলের ব্যবসা ও সম্পত্তি অধিগ্রহণের পরিকল্পনা করেছে তারা। কোনও রকম দেরি না করেই চুক্তি মতো গোটা লেনদেন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে আগ্রহী আরআরভিএল।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন