টাকার টানা পতন আটকাতে শীঘ্রই অনাবশ্যক পণ্যের আমদানি কমানোর পথে হাঁটবে কেন্দ্র। জোর দেবে রফতানি বাড়াতেও। রবিবার এ কথা জানিয়ে আর্থিক বিষয়ক সচিব সুভাষচন্দ্র গর্গ বলেন, পণ্যগুলির তালিকা প্রায় তৈরি। কয়েক দিনের মধ্যেই নাম ঘোষণা করা হবে। আর এর হাত ধরে আগামী দিনে ডলারের দাম ৬৮-৭০ টাকার মধ্যে নেমে আসবে বলে কেন্দ্র আশা করছে বলেও দাবি তাঁর। তবে টাকার পতন সাময়িক ঘটনা বলে ফের এ দিন জানিয়েছেন গর্গ।

প্রসঙ্গত, ডলারের সাপেক্ষে টাকার ক্রমাগত পড়ে চলা ও চলতি খাতে ঘাটতি নিয়ে কেন্দ্রকে বিঁধছেন বিরোধীরা। এই পরিস্থিতিতে দেশের আর্থিক অবস্থা খতিয়ে দেখতে বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সিদ্ধান্ত হয়েছে উৎপাদন শিল্পের বৈদেশিক ঋণ ও বিদেশে টাকায় ছাড়া বন্ডের (মশালা বন্ড) নিয়ম শিথিল করার। তার পাশাপাশি, অনাবশ্যক পণ্য আমদানি কমাতে ব্যবস্থা নেওয়া এবং দেশীয় রফতানি শিল্পকে উৎসাহ দিতে কিছু ক্ষেত্রকে চিহ্নিত করার কথাও বলা হয়েছে।

এই প্রসঙ্গেই এ দিন গর্গের দাবি, ভারতের বৃদ্ধির হার যথেষ্ট ভাল। মূল্যবৃদ্ধি কম, সরকার রাজকোষ ঘাটতি নিয়ন্ত্রণে রাখছে। অথচ তা-ও টাকার দাম গত ছ’মাসে ১০-১২% বা দু’মাসে ৬-৯% নামায় চিন্তিত কেন্দ্র। বিশেষ করে ডলার ৭২ টাকা ছাড়ানোয় উদ্বেগ বেড়েছে। গর্গ বলেন, এই কারণেই প্রধানমন্ত্রী বৈঠক করেছেন। কিছু সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে সব ব্যবস্থা এখনও কার্যকর হয়নি। আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই তা করা হবে। আর সে ক্ষেত্রে টাকার দর ঘুরে দাঁড়াবে বলে তাঁদের আশা।