Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

বাড়ছে উদ্বেগ, ভারতের ইতিহাসে এই প্রথম আপাত মন্দা, জানাল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই ১২ নভেম্বর ২০২০ ১২:১৪
গ্রাফিক: তিয়াসা দাস।

গ্রাফিক: তিয়াসা দাস।

স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে এই প্রথম আপাত মন্দা (‘টেকনিক্যাল রিসেশন’) দেখা দিয়েছে। ২০২০-’২১ অর্থবর্ষের প্রথম ত্রৈমাসিকে। মাসের হিসাবে এপ্রিল থেকে জুনে।

বৃহস্পতিবার এ কথা জানিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া (আরবিআই)। ‘নাউকাস্ট’ নামে একটি সমীক্ষা রিপোর্টে।

রিজার্ভ ব্যাঙ্কের তরফে জানানো হয়েছে দেশের এই আপাত বা সাময়িক মন্দা নিয়ে একটি সরকারি পরিসংখ্যান প্রকাশিত হবে নভেম্বরের ২৭ তারিখে।

Advertisement

আরবিআই-এর সমীক্ষা রিপোর্টে লেখা হয়েছে, ‘‘স্বাধীনতার পর এই প্রথম ভারতে আপাত মন্দা দেখা দিয়েছে। ২০২০-’২১ অর্থবর্ষের প্রথম ত্রৈমাসিকে। এপ্রিল থেকে জুন, এই সময়ে।’’

পর পর দু’টো বা তিনটে ত্রৈমাসিকে যদি জিডিপি পড়ে যায়, তার সঙ্গে বাড়ে বেকারত্ব, চাকরি খোওয়ানোর ঘটনা তা হেল সাধারণ ভাবে তাকেই অর্থনীতিতে মন্দা বলা হয়। আর যদি মনে করা হয়, সেই মন্দা নেহাতই সাময়িক, তার রেশ কাটিয়ে অর্থনীতি আবার ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে পরের ত্রৈমাসিকগুলি থেকে, তা হলে সেই মন্দাকে বলা হয় ‘টেকনিক্যাল রিসিশন’ বা আপাত মন্দা। সাময়িক মন্দাও বলা হয়।

আরবিআই জানিয়েছে, তথাকথিত মন্দার সব শর্ত পূরণ করেও এটা আসলে মন্দা নয়।আপাত মন্দা। কারণ, ওই দু’টি ত্রৈমাসিকে ূর্কোণোনও ভাবে বাজারের ইঞ্জিন থমকে গেলেও আবার তা পূর্ণোদ্যমে চলতে শুরু করেছে।

ওই রিপোর্ট এও জানিয়েছে, চলতি অর্থবর্ষের পর পর দু’টি ত্রৈমাসিকে দেশের জিডিপি-র হার নিম্নমুখী হয়েছে। গত সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে জিডিপি কমেছে ৮.৬ শতাংশ। আর গত এপ্রিল থেকে জুনে দেশের অর্থনীতি নিম্নমুখী হয়েছে ২৪ শতাংশ।

আরও পড়ুন: উপনির্বাচনে ভাল ফল বিজেপি-র, ঝাড়খণ্ডে কঠিন লড়াইয়ে মুখ্যমন্ত্রীর ভাই

আরও পড়ুন: বিহার ভোটের চূড়ান্ত ফল আসতে গড়াবে মধ্য রাত, জানাল নির্বাচন কমিশন

তবে অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত চলতি অর্থবর্ষের তৃতীয় ত্রৈমাসিকে দেশের অর্থনীতি আবার তেজি হয়ে উঠবে বলে আশা প্রকাশ করা হয়েছে সমীক্ষায়। এর আগে এই ব্যাপারে যে সময়সীমার কথা বলেছিলেন আরবিআই-এর গভর্নর শক্তিকান্ত দাস, সমীক্ষা রিপোর্ট জানিয়েছে তার আগেই হবে আর্থিক বৃদ্ধি।

রিপোর্ট এও জানিয়েছে, করোনা পরিস্থিতিতে দেশে ব্যাঙ্কে নগদ জমা করার পরিমাণ অনেক বেড়ে গিয়েছে। ২০১৯-এর এপ্রিল থেকে জুনে যা দেশের জিডিপি-র ৭.৯ শতাংশ ছিল তা বেড়ে গিয়ে এ বছরের ওই সময়ে হয়েছে ২১.৪ শতাংশ।

করোনা সঙ্কটের দরুন বিশ্বের অর্থনীতিতেও কঠিন সময় আসছে বলে রিপোর্টে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে।

(এই খবরটি প্রথম প্রকাশের সময় ‘আপাত মন্দা’র পরিবর্তে ‘প্রযুক্তি মন্দা’ লেখা হয়েছিল। অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য আমরা দুঃখিত।)

আরও পড়ুন

Advertisement