• সংবাদ সংস্থা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আইইউসি নিয়ে বিতর্ক চড়ছেই

Phone
প্রতীকী ছবি।

কল সংযোগ বাবদ ধার্য ইন্টারকানেকশন ইউসেজ চার্জ (আইইউসি) তুলে দেওয়া নিয়ে নতুন ও পুরনো টেলিকম সংস্থাগুলির মধ্যে দ্বন্দ্ব তুঙ্গে। রিলায়্যান্স-জিয়ো ওই মাসুল তুলে দেওয়ার পক্ষে। তাতে আপত্তি তুলছে এয়ারটেল, ভোডাফোন আইডিয়া, বিএসএনএলের মতো পুরনো সংস্থাগুলি। এ বার টেলিকম নিয়ন্ত্রক ট্রাইয়ের কাছে এয়ারটেলের দাবি, ২০২২ সাল পর্যন্ত ওই মাসুল থাকুক। 

যে পরিষেবা সংস্থার নম্বর থেকে কল করা হচ্ছে, তাদের প্রতি মিনিটে ৬ পয়সা করে মাসুল দিতে হয়। যে সংস্থার সংযোগে কল যাচ্ছে তারা সেই মাসুল পায়। আগে ওই মাসুল ছিল মিনিটে ১৪ পয়সা। এর আগে ট্রাই জানিয়েছিল, আগামী বছর থেকে তা একেবারে তুলে দেওয়া হবে। কিন্তু সম্প্রতি তারা জানায়, ফের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। এর পরেই বিতর্ক দানা বাঁধে। জিয়োর অভিযোগ, এই মাসুল গ্রাহক স্বার্থ বিরোধী। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ডিজিটাল ইন্ডিয়ার পরিকল্পনার পরিপন্থী। একই কথা বলে ব্রডব্যান্ড পরিষেবা সংস্থাগুলির সংগঠন ইন্ডিয়া ফোরামও। 

পুরনো সংস্থাগুলির পাল্টা দাবি, এখনও আইইউসি তুলে দেওয়ার সময় আসেনি। এয়ারটেলের বক্তব্য, তা আরও অন্তত তিন বছর থাকা উচিত। বস্তুত, ২জি থেকে গ্রাহকদের উন্নততর ৪জি প্রযুক্তিতে উত্তরণের জন্য লগ্নির পথ সুগম করতেই আইইউসি তুলে দেওয়ার কথা ভাবা হয়ছিল। পুরনো সংস্থাগুলির দাবি, ৪জি মোবাইল ফোন দামি হওয়ায় এখনও দেশের অধিকাংশ মানুষই ২জি ফোন ব্যবহার করেন। ফলে সেই গ্রাহকদের জন্য পুরনো প্রযুক্তি এবং পরিকাঠামো এখনও জরুরি। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন