Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

জেট আকাশে নেই, ফোনে ‘টুংটাং’ বহাল

সুনন্দ ঘোষ
০৫ অক্টোবর ২০১৯ ০৩:১০
জেট এয়ারওয়েজ

জেট এয়ারওয়েজ

প্রতিযোগিতা থেকে ছিটকে গিয়ে সেই কবেই ডানা গুটিয়ে বসে গিয়েছে জেট।

আকাশে নেই তারা। তবু, তাদের পুরনো জেট প্রিভিলেজ পয়েন্ট ব্যবহার করার অনুরোধের খামতি নেই কোনও। টুংটাং করে বার্তা আসছে জেট এয়ারওয়েজের নামে। মোবাইল খুলতেই দেখা যাচ্ছে— ‘জেট প্রিভিলেজে গিয়ে উড়ান বুক করুন। জিতে নিন ৫ হাজার জেট প্রিভিলেজ পয়েন্ট!’ মানুষ ধন্দে, কোথায় জেট? আর কোথায় তাদের পয়েন্ট?

দিন কয়েক আগে মুম্বইয়ের বহুজাতিক সংস্থার কর্তা সুজয় দত্তের ফোনে জেটের মেসেজ এসেছে। বলা হয়েছে, আপনার এত পয়েন্ট জমেছে। চাইলে তা ব্যবহার করতে পারেন। সুজয়বাবু অবাক! জেট-ই নেই, পয়েন্ট কোথায় ব্যবহার করব?

Advertisement

সম্প্রতি দিল্লির আর এক সংস্থার কর্তা শুভাশিস বসাকের কাছেও এমন বার্তা এসেছে। শুভাশিসের প্রশ্ন, ‘‘যে সংস্থার অস্তিত্ব নেই, সেই সংস্থা থেকে এখনও কী করে বার্তা আসে!’’ তালিকায় কলকাতা-সহ বিভিন্ন শহরের বহু মানুষ রয়েছেন। বার্তা দেখে অবজ্ঞা করছেন লোকে।

জেট যখন রমরম করে পরিষেবা দিচ্ছে, তখন যাঁরা নিয়মিত জেটের উড়ানে যাতায়াত করতেন, তাঁদের এই বিশেষ জেট প্রিভিলেজ পয়েন্ট দেওয়া হত। সমস্ত বিমান সংস্থাই নিজেদের নিয়মিত যাত্রীদের (ফ্রিকোয়েন্ট ফ্লায়ার) এ ভাবে পয়েন্টের সুবিধা দিয়ে থাকে। একটি নির্দিষ্ট পয়েন্ট জমলে তা দিয়ে এক পিঠের বিমান টিকিট বিনামূল্যে পাওয়ার মতো নানা সুবিধা মেলে। কিন্তু এ বছরের ১৭ এপ্রিল বসে গিয়েছে জেট। তাই, যাঁরা মোবাইলে এই বার্তা পাঠাচ্ছেন, তাঁরা কোথায় তা ব্যবহার করবেন সে নিয়ে একেবারেই অন্ধকারে। চোখের সামনে সুদীপ পালের মতো মানুষও রয়েছেন, যাঁরা লক্ষাধিক টাকা দিয়ে জেটের অগ্রিম টিকিট কেটে সেই টাকা ফেরত পেতে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

সংস্থারই একটি সূত্র জানাচ্ছে, এপ্রিলে জেট বসে যাওয়ার পরে জুন মাসে বিদেশ থেকে ধার করা ১৬টি বিমান ফিরিয়ে দেওয়া হয়। স্পাইসজেট লিজ নেয় জেটের বসে যাওয়া প্রায় ৩৬টি বিমান। বিস্তারা লিজ নেয় আরও ৯টি। তারপরেও ৬০ টি বিমান এখনও ভারতের বিভিন্ন শহরে বসে রয়েছে। সংস্থার এক কর্তার কথায়, ‘‘এখনও জেটের পুনর্গঠনের প্রচেষ্টা চলছে। দেউলিয়া ঘোষণা করার পরে সম্প্রতি দক্ষিণ আমেরিকার একটি সংস্থা জেট-এর বিষয়ে উৎসাহ দেখিয়েছে। তা ছাড়া কাগজে কলমে এখনও বন্ধ হয়নি জেট। এখনও সংস্থার কাছে অপারেটার্স পারমিট-ও রয়েছে।’’

কিন্তু, জেট প্রিভিলেজ পয়েন্ট?

সংস্থার সূত্রটি জানাচ্ছে, ২০১৪ সালে এতিহাদ জেট-এর বড় শেয়ার নিয়ে নেওয়ার পরে আলাদা করে এই জেট প্রিভিলেজ সংস্থা খোলা হয়। সেটি এখনও সক্রিয় রয়েছে। শুধু জেট নয়, এই নির্দিষ্ট পয়েন্ট এতিহাদ সহ আরও অনেক উড়ান সংস্থায় ব্যবহার করা যাবে। তার তালিকা জেট প্রিভিলেজ-এর সাইটে পাওয়া যাবে।

সুজয়বাবুর প্রশ্ন— ভারতের অভ্যন্তরের কোনও উড়ান সংস্থা কি সেই তালিকায় রয়েছে? নচেৎ, কত জনই বা এতিহাদে চড়ে ভারত থেকে নিয়মিত বিদেশে যাতায়াত করেন?

আরও পড়ুন

Advertisement