ইনফোসিস নিয়ে হুইসলব্লোয়ারের অভিযোগ যোগ্য ও সম্মাননীয় কিছু ব্যক্তির ভাবমূর্তিতে কালি লেপার ক্ষতিকর চেষ্টা বলে নিন্দা করলেন সংস্থার অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান নন্দন নিলেকানি। বললেন, ‘‘সংস্থার আয়-ব্যয় হিসেবের প্রক্রিয়া এতটাই পোক্ত যে, স্বয়ং ভগবানও তা বদলাতে পারবেন না।’’ বিষয়টি তাঁদের আর্থিক হিসেব সামলানোর ভারপ্রাপ্ত কর্মীদের পক্ষে যথেষ্ট অপমানজনক বলেও তোপ দাগেন তিনি।

সম্প্রতি এক অজ্ঞাতনামা গোষ্ঠী সংস্থার হিসেবে গরমিলের অভিযোগ তোলে। চিঠি দিয়ে বলে, স্পল্প মেয়াদে আয় ও মুনাফা বাড়াতে নীতিবিরুদ্ধ কাজে মদত জুগিয়েছেন বর্তমান সিইও সলিল পারেখ এবং সিএফও নীলাঞ্জন রায়। কিন্তু ইনফোসিস অভ্যন্তরীণ তদন্তে প্রাথমিক ভাবে ওই অভিযোগের কোনও প্রমাণ পায়নি।

তার পরেই বুধবার সংস্থা বিবৃতিতে বলেছে, ‘‘ইনফোসিস কড়া নিন্দা করছে সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রাক্তন কর্মীদের বিরুদ্ধে অজ্ঞাত পরিচয় সূত্রের তোলা এই ক্ষতিকর ইঙ্গিতের।’’ নিলেকানি বলেন, ‘‘জল্পনা ভয়ঙ্কর। সম্মাননীয় ব্যক্তিদের মানহানির চেষ্টা।’’

এ দিনই অভিযোগ সম্পর্কে সংস্থার কাছে তথ্য চেয়েছে ন্যাশনাল রিপোর্টিং অথরিটি ও কর্নাটকের রেজিস্ট্রার অব কোম্পানিজ়। বাড়তি তথ্য তলব করেছে এনএসই, বিএসই-ও।