Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

গ্রাহক ধরে রাখতে নতুন উদ্যোগ বিএসএনএল-এর

বিরক্ত হয়ে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছিলেন গ্রাহকেরা। মোবাইলের নম্বর একই রেখে বিএসএনএল ছেড়ে দলে দলে চলে যাচ্ছিলেন জিও, এয়ারটেল, ভোডাফোনের কাছে। তুলনায়

সুনন্দ ঘোষ
কলকাতা ২০ অক্টোবর ২০১৭ ০২:৩৫

বিরক্ত হয়ে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছিলেন গ্রাহকেরা। মোবাইলের নম্বর একই রেখে বিএসএনএল ছেড়ে দলে দলে চলে যাচ্ছিলেন জিও, এয়ারটেল, ভোডাফোনের কাছে। তুলনায় অন্য পরিষেবা ছেড়ে বিএসএনএল-এ গ্রাহক আসছিলেন কম।

এ ভাবে দলে দলে গ্রাহকদের ছেড়ে যাওয়ায় শঙ্কিত বিএসএনএল কর্তারা এ বার নড়েচড়ে বসেছেন। কর্তাদের কথায়, বছরখানেক আগে রিলায়েন্স এসে ঘুম ছুটিয়ে দিয়েছে বাকিদের। কিন্তু, তাঁদের দাবি, বিনা পয়সায় পরিষেবার সঙ্গে প্রতিযোগিতায় নামার অর্থ আত্মহত্যা। সেই পথে না হেঁটে নতুন নতুন প্রকল্প দিতে শুরু করেছে বিএসএনএল। আর তাতেই গত সেপ্টেম্বর থেকে আবার গ্রাহকেরা ফিরছেন বলে দাবি ওই সংস্থার। সেপ্টেম্বর এবং অক্টোবরে যত জন বিএসএনএল ছেড়েছেন (পোর্ট আউট), তার চেয়ে বিএসএনএল-এ এসেছেন (পোর্ট ইন) বেশি।

আগে গ্রাহকদের বিরক্তির মূল কারণ ছিল কল ড্রপ এবং নেটওয়ার্ক না পাওয়ার সমস্যা। বিএসএনএল-এর সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং বিভাগের জেনারেল ম্যানেজার সোমেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, গত ৬ মাস ধরে কলকাতা টেলিফোনের ২ হাজার বর্গ কিলোমিটার এলাকায় নতুন ১ হাজার ৩জি বেস ট্রান্সমিশন স্টেশন বসেছে। সবগুলির ‘অ্যান্টেনা ওরিয়েন্টেশন’-এর কাজ পুরোপুরি শেষ না হলেও গ্রাহকেরা ইতিমধ্যেই সুফল পেতে শুরু করেছেন। এখন মেট্রোর ভিতরেও বিএসএনএল-এর নেটওয়ার্ক পাওয়া যাচ্ছে। কল ড্রপও কমেছে। তাঁর দাবি, তিন-চার মাস পরে অ্যান্টেনা ওরিয়েন্টেশন-এর কাজ শেষ হলে পরিষেবা আরও উন্নত হবে।

Advertisement

সোমেন্দ্রনাথবাবুর কথায়, ‘‘কলকাতায় ১১ লক্ষ গ্রাহকের মধ্যে মাত্র ৭৩ হাজার পোস্ট পেড। বাকি পুরোটাই প্রি-পেড। তাই, এই গ্রাহকদের ধরে রাখাটাই মূল লক্ষ্য।’’ ৩১ অক্টোবরের মধ্যে বিনামূল্যে নতুন সিম দেওয়া, ৪৯ টাকায় ছোট প্ল্যান, দীপাবলি উপলক্ষে এখন ২৯০ বা ৩৯০ বা ৫৯০ টাকার টপ আপ করলে অনেক বেশি টাকার টক টাইম দেওয়া — এই ধরণের নতুন নতুন অফার আসছে প্রি-পেড গ্রাহকদের জন্য। সোমেন্দ্রবাবু জানিয়েছেন, দীপাবলির অফার ২১ অক্টোবর পর্যন্তই মিলবে।

সংস্থার তরফে দাবি, প্রতি দিন বাড়ছে নতুন গ্রাহকের সংখ্যা। পরিসংখ্যান দিয়ে সোমেন্দ্রনাথবাবু জানিয়েছেন, ২০১৬ সালের এপ্রিলে নতুন প্রি-পেড গ্রাহক পেয়েছিলেন ৯০৬৮ জন, এ বছরের এপ্রিলে নতুন গ্রাহকের সংখ্যা বেড়ে ৪২ হাজার ২৪০ জন হয়েছে। সোমেন্দ্রবাবু বলেন, ‘‘একটা সময় ছিল, যখন গ্রাহকেরা আমাদের কাছে এসে কানেকশন নিতেন। এখন আমরাই গ্রাহকদের কাছে পৌঁছনোর চেষ্টা করছি। কলকাতা টেলিফোন এলাকায় প্রতি দিন ১০০টি করে ক্যাম্প করা হচ্ছে। এই ক্যাম্প থেকে প্রচুর গ্রাহক আসছে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement