Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

সুপ্রিম কোর্টের রায়ে স্বস্তি, ভোডাফোনকে ৮৩৩ কোটি টাকা ফেরতের নির্দেশ কেন্দ্রকে

বিচারপতিরা বলেন, রিফান্ড আটকে রাখার ক্ষমতা আয়কর বিভাগের নেই।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২২ জুলাই ২০২০ ১৯:৫৮
Save
Something isn't right! Please refresh.
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

Popup Close

মাথার উপর বিপুল অঙ্কের আর্থিক বোঝা। এর মধ্যেই অবশ্য সুপ্রিম কোর্টে আয়কর মামলায় কিছুটা স্বস্তি পেল ভোডাফোন-আইডিয়া। আয়কর দফতরকে ৮৩৩ কোটি টাকা ফেরানো নিয়ে যে রায় বম্বে হাইকোর্ট দিয়েছিল, বুধবার তাই বহাল রাখল শীর্ষ আদালত। ওই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়েই সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু এ দিন কেন্দ্রের দাবি খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। আদালত জানিয়ে দিয়েছে, ভবিষ্যতের কথা ভেবে রিফান্ড আটকে রাখার ক্ষমতা নেই আয়কর দফতরের।

অ্যাডজাস্টেড গ্রস রেভিনিউ (এজিআর)-এর বকেয়া মেটাতে গিয়ে বিপুল সঙ্কটে পড়েছে ভোডাফোন আইডিয়া। ৭ হাজার ৮৫৪ কোটি টাকা বকেয়াটা তারা মিটিয়েছে। এখনও ৫০ হাজার কোটি টাকার বেশি তাদের দিতে হবে। এই পরিস্থিতিতে আয়কর দফতর বলে, ভোডাফোনকে টাকা ফেরত দেওয়ার প্রয়োজন নেই। সরকার তাদের থেকে বিপুল অর্থ পায় তা থেকে ওই অঙ্ক বাদ দেওয়া হোক। আর তা নিয়েই শুরু হয়েছিল মামলা।

এ দিন বিচারপতি আরডি ধানুকা এবং মাধব জামদরের ডিভিশন বেঞ্চে ওই মামলাটি ওঠে। তাঁরা জানিয়ে দেন, ভবিষ্যতের কথা ভেবে কখনই রিফান্ড আটকে রাখা যাবে না। তার এক্তিয়ারও আয়কর বিভাগের নেই। ওই টাকা ভোডাফোন-আইডিয়াকে ফেরত দিতেই হবে।

Advertisement

আরও পড়ুন: বৈদ্যুতিন সাক্ষ্যপ্রমাণের শংসাপত্র নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের ঐতিহাসিক রায়

এর আগে গত ২৬ জুন বম্বে হাইকোর্টে ভোডাফোন-আইডিয়া আবেদন করে তাদের হাজার কোটি টাকার বেশি ফিরিয়ে দেওয়া হোক। আদালত কেন্দ্রীয় সরকারকে দু’সপ্তাহের মধ্যে ৮৩৩ কোটি টাকা ফিরিয়ে দিতে বলে। কিন্তু সেই রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে পাল্টা আবেদন করে আয়কর বিভাগ।

আরও পড়ুন: একে-৪৭ হাতে রুখে দাঁড়াল কিশোরী, গুলি করে মারল বাবা-মায়ের হত্যাকারী তালিবান জঙ্গিদের

ভোডাফোন-আইডিয়া, এয়ারটেল, টাটা টেলিকমের মতো সংস্থার থেকে এজিআর বাবদ প্রায় ১ লক্ষ ৬০ হাজার কোটি বকেয়া রয়েছে কেন্দ্রের। প্রাথমিক ভাবে ওই বিপুল বকেয়া মেটানোর জন্য তাদের ২০ বছরের সময় দেওয়া হয়েছিল। তাতে রাজি হয় সরকারও। কিন্তু শীর্ষ আদালত বলে, লকডাউনের সময় টেলিফোন সংস্থাগুলিই একমাত্র লাভের মুখ দেখেছে। তাদের দ্রুত বকেয়া মেটানো প্রয়োজন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement