• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

লগ্নি আর কাজে টান, জোর শিল্প নীতিতেই

Industry

প্রতিশ্রুতি মতো বছরে দু’কোটি কর্মসংস্থানের হিসেব এখনও মেলেনি। বিনিয়োগের ছবিও উজ্জ্বল নয়। বরং হালে কমেছে শিল্পোৎপাদনের হার। এই অবস্থায় লোকসভা ভোটের মুখে নয়া শিল্প নীতি আনতে চলেছে কেন্দ্র। এ মাসেই তা ঘোষণা করা হবে বলে শনিবার  শহরে এসে দাবি করলেন শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী সুরেশ প্রভু।

‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ থেকে শুরু করে সহজে ব্যবসা করার পরিবেশ (ইজ অব ডুয়িং বিজনেস) তৈরি— ক্ষমতায় এসে লগ্নি ও কর্মসংস্থানে গতি আনতে নানা উদ্যোগের কথা বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু এ নিয়ে বিরোধীদের নিশানার মুখে পড়েছে কেন্দ্র। তাদের অভিযোগ, কাজের কাজ কিছু হয়নি। এই পরিস্থিতিতে এ দিন ইন্ডিয়ান চেম্বারের সভায় প্রভু জানান, শিল্প নীতি প্রায় চূ়ড়ান্ত। যে কোনও দিন তা ঘোষণা করা হবে। তিনি বলেন, ‘‘চালু শিল্পের আধুনিকীকরণ ও ভবিষ্যৎ শিল্পের পথ তৈরিই ওই নীতির উদ্দেশ্য।’’

সংশ্লিষ্ট মহলের অনেকেই মনে করছেন, ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বৃদ্ধির মতোই লোকসভা ভোটে কেন্দ্রের শাসকদলের প্রচারের অন্যতম হাতিয়ার হবে এই শিল্প নীতি। সম্প্রতি কেন্দ্র জানিয়েছে, খরিফ শস্যের চাষের খরচের দেড় গুণ হবে ন্যূনতম দাম। তবে এখনই তার সুফল মিলবে না বলে দাবি অনেকের। ঠিক তেমনই শিল্প নীতি ঘোষণা করলেই লগ্নি সঙ্গে সঙ্গে আসবে বা কাজের সুযোগ তৈরি হবে, এমনটা নয়। কিন্তু ভোটের আগে জনতার দরবারে যেতে সুবিধা হবে মোদীর।

প্রভুর আশা, রাজ্যগুলিও সেই নীতি কার্যকর করতে কেন্দ্রে পাশে থাকবে। এ প্রসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের শিল্প সম্ভাবনার উল্লেখ করে তিনি জানান, তাঁর মন্ত্রক এ রাজ্যের সঙ্গে যৌথ ভাবে কাজ করবে। দেশের সার্বিক উন্নতির জন্য জেলাস্তরে বৃদ্ধির হার বাড়ানো জরুরি বলেও তাঁর অভিমত।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন