আপাতত বিক্রি হচ্ছে না বেঙ্গল কেমিক্যালস অ্যান্ড ফার্মাসিউটিক্যালসের জমির একাংশ।

কেন্দ্রীয় রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা বেঙ্গল কেমিক্যালস বা বিসিপিএলের জমির একাংশ বিক্রির উপর স্থগিতাদেশের মেয়াদ ২১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাড়িয়ে দিল কলকাতা হাইকোর্ট। আগে তা ছিল অগস্ট পর্যন্ত। বাড়তি জমি বিক্রি সংক্রান্ত মামলার শুনানিতে মঙ্গলবার হাইকোর্টের বিচারপতি দেবাংশু বসাক অতিরিক্ত সলিসিটর জেনারেল কৌশিক চন্দের কাছে জানতে চান, ওই সংস্থার জমি আদৌ বিক্রির প্রয়োজন রয়েছে কি না।

সংস্থার স্থাবর সম্পত্তির একাংশ বিক্রির সিদ্ধান্তে আগেই সায় দিয়েছিল কেন্দ্র। সেই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের বিচারপতি দেবাংশু বসাকের আদালতে মামলা করে সংস্থার শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন। গত ২২ জুন মামলার শুনানিতে বিচারপতি বসাক অতিরিক্ত সলিসিটর জেনারেল কৌশিক চন্দের কাছে জানতে চেয়েছিলেন, লাভের মুখ দেখলেও কী কারণে বেঙ্গল কেমিক্যালস বিক্রি করতে চাইছে কেন্দ্র। এ নিয়ে কেন্দ্রকে ২১ জুলাইয়ের মধ্যে হলফনামা দিতে বলেন বিচারপতি। অগস্ট পর্যন্ত জমি বিক্রিতে স্থগিতাদেশও জারি করেন তিনি। মঙ্গলবার তার মেয়াদই বাড়ল। পাশাপাশি, কৌশিকবাবুর আর্জি মেনে হলফনামা পেশের জন্য সময় দেওয়া হয়েছে ৪ অগস্ট পর্যন্ত।

উল্লেখ্য, গত বছরের শেষে বিসিপিএল বিলগ্নিকরণ বা সেখানে বেসরকারি লগ্নির সম্ভাবনা খতিয়ে দেখা নিয়ে কেন্দ্রের নির্দেশের পরিপ্রেক্ষিতে সংস্থায় শঙ্কার মেঘ ছড়িয়েছিল। যদিও সংস্থা-কর্তাদের দাবি ছিল, সার্বিক ভাবে কেন্দ্রের একগুচ্ছ রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার সম্ভাব্য বিলগ্নিকরণের তালিকায় বিসিপিএল-এর নাম থাকলেও তারপর থেকে নতুন করে কেন্দ্রের কাছ থেকেও ওই নিয়ে কোনও বার্তা আসেনি।