• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

টাকা ফেরত, কথা বলুক কেন্দ্র

main
ফাইল চিত্র।

লকডাউনে বাতিল হওয়া উড়ানের টিকিটের টাকা যাতে যাত্রীরা ফেরত পান, এ বার সে জন্য এগিয়ে এল সুপ্রিম কোর্ট। সম্প্রতি এক অসরকারি সংস্থার করা অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার শীর্ষ আদালত কেন্দ্র ও বিমান সংস্থাগুলিকে এ নিয়ে কথা বলার নির্দেশ দিয়েছে। কেন যাত্রীরা পুরো টাকা ফেরত পাবেন না, তার কারণ দর্শাতে সোমবার কেন্দ্র ও বিমান নিয়ন্ত্রক ডিজিসিএ-কে বক্তব্য পেশ করতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি এই সময়ে সংস্থাগুলির বিপুল ক্ষতি নিয়ে তাদের বক্তব্যও তিন সপ্তাহের মধ্যে শোনা হবে বলে জানিয়েছে আদালত।

২২ মার্চ আন্তর্জাতিক এবং ২৪ মার্চ থেকে দেশীয় উড়ান বন্ধ হওয়ায় মাথায় হাত পড়ে বহু যাত্রীর। অভিযোগ, বাতিল উড়ানের টিকিটের টাকা ফেরত চাইলে, তা দিতে অস্বীকার করে সংস্থাগুলি। কেন্দ্র জানায়, লকডাউনের সময়ে যাঁরা টিকিট কেটেছিলেন ও সেই উড়ান বাতিল হয়েছে শুধু তাঁরাই পুরো টাকা ফেরত পাবেন। এ দিন আদালতে প্রশ্ন তোলা হয়, লকযাঁরা আগে টিকিট কেটেছিলেন ও উড়ান বাতিল হয়েছে, তাঁরা কেন তা পাবেন না?ডাউনের মধ্যে কত জন টিকিট কেটেছেন? কিছু যাত্রী পুরো টাকা ফেরত পাবেন, অথচ

কেন্দ্রের নির্দেশে বাতিল হওয়া উড়ানের বেশিরভাগ যাত্রীকে ‘ক্রেডিট শেল’ দিচ্ছিল বিমান সংস্থাগুলি। যার অর্থ, কোনও যাত্রী ১০ হাজার টাকা দিয়ে টিকিট কাটলে সেই টাকা সংস্থার ঘরে জমা থাকবে। পরে এক বছরের মধ্যে ওই যাত্রী সেই সংস্থার অন্য বিমানে যেতে চাইলে গচ্ছিত টাকা ব্যবহার করে টিকিট কাটতে পারবেন। এ নিয়েও আপত্তি উঠেছে। অভিযোগে বলা হয়েছে, ডিজিসিএ-র নিয়মে উড়ান বাতিল হলে নগদে কাটা টিকিটের টাকা সঙ্গে সঙ্গে ফেরত দিতে হবে। ক্রেডিট কার্ডের টাকা সাত দিনের মধ্যে এবং এজেন্সিকে দিয়ে বা অনলাইনে কাটা টিকিটের টাকা এক মাসের মধ্যে ফেরত দিতে হবে। যদি যাত্রী চান, তবেই তিনি ক্রেডিট শেলের সুবিধা নেবেন। তাঁকে জোর করে সেই সুবিধা দিতে পারবে না সংস্থা।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন