মেয়েদের জন্য বিয়ার— এ ভাবেই ফেসবুকে প্রচার চালাচ্ছিল গুরুগ্রামের একটি পানশালা। দাবি করা হয়, এ দেশে এটাই প্রথম মহিলাদের বিয়ার। কিন্তু ফেসবুকে ওই প্রচার ভাল ভাবে নেননি বেশির ভাগ মানুষ। তাঁরা বিষয়টির প্রতিবাদ করেন। এরপরেই ফেসবুক থেকে পোস্টটি ডিলিট করে দেওয়া হয়।

তবে তার আগেই অনেকে স্ক্রিন শট নিয়ে রাখেন সেই পোস্টের।ফেসবুক থেকে পোস্টটি ডিলিট করে দেওয়ার পরেও সেটি নিয়ে আলোচনা চলছে টুইটারে। বেশির ভাগ মহিলাও বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তাঁদের মতে, এ ভাবে পানীয়ের ব্যাপারে মহিলা-পুরুষ ভেদাভেদ করা ঠিক নয়।

গুরুগ্রামের ওই পানশালার নাম ‘আরডর ২৯’। সম্প্রতি তারা ফেসবুকে ঘোষণা করে, মহিলদের জন্য মিষ্টি স্বাদের বিয়ার পাওয়া যাচ্ছে তাদের কাছে। ওই প্রচারের সময় যে ছবিটি পোস্ট করা হয়েছিল, সেখানে দেখা যাচ্ছে একটি উল্টানো বোতলের মতো দেখতে পাত্রে রাখা রয়েছে বিয়ার।পানশালার এক মুখপাত্র দাবি করেছেন, এটি তাঁদের মালিকের ভাবনা। বিজ্ঞাপনে যে পানীয়ের কথা বলা হয়েছিল, সেটাআসলে বিয়ার ককটেল। যার মধ্যে ৯০ শতাংশ বিয়ার রয়েছে।এর স্বাদও মিষ্টি। সাধারণ বিয়ারের মতো অতটা কড়া নয়।যে মহিলারা তেতো বিয়ার পছন্দ করে না, তাদের এটি ভাল লাগবে। সে কারণেই বিজ্ঞাপনটি করা হয়েছিল।

আরও পড়ুন : সঙ্গীকে নিয়ে সুশির দোকানে বাসা বাঁধছিল নীল পেঙ্গুইন, তুলে নিয়ে গেল পুলিশ

আরও পড়ুন : আয়ুর্বেদিক ডিম বা মুরগির কথা শুনেছেন?

 

পানশালার তরফে আরও দাবি করা হয়েছে, ২০ জন মহিলাকে এই বিয়ার খেতে দেওয়া হয়। তাঁদের মধ্যে ১৯ জনই জানিয়েছেনবিয়ারটির স্বাদ সুন্দর। যিনি ভিন্ন মত প্রকাশ করেছেন, তিনি এটিকে ‘অতিমাত্রায় নারীবাদী’ বলে মন্তব্য করেছেন।