ফেসবুক পোস্টে খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে ‘চোর’ বলার অভিযোগে হাবড়া থানার পুলিশ গ্রেফতার করল এক যুবককে। শনিবার রাতে উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়ার বাউগাছি এলাকা থেকে তাকে ধরা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতের নাম রামপ্রসাদ দাস ওরফে রাহুল দাস। তার বাড়ি রাজবল্লভপুর এলাকায়। ধৃতকে রবিবার বারাসত জেলা আদালতে হাজির করানো হলে বিচারক তার চার দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ৪ অক্টোবর হাবড়ার শ্রীনগর এলাকার একটি পুজো মণ্ডপের  উদ্বোধন করেন হাবড়ার বিধায়ক তথা রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয়। ওই উদ্বোধনের ছবি দিয়ে ওই ক্লাবের এক সদস্য তমাল বণিক ফেসবুকে একটি পোস্ট করেন। পোস্টটিতে তমাল লেখেন—জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক তাঁদের পুজো উদ্বোধন করেছেন। তাঁকে সংবর্ধনা  দিতে পেরে তাঁরা খুশি।

ওই পোস্টের তলায় রামপ্রসাদ ‘কমেন্ট’ লেখেন, ‘দাদা, চোরটাকে নিয়ে এলে’। এর পরেই হাবড়ার রাজনৈতিক মহলে এ নিয়ে শোরগোল পড়ে যায়। শনিবার হাবড়া শহর তৃণমূল সভাপতি সীতাংশু দাস হাবড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। তিনি বলেন, ‘‘খাদ্যমন্ত্রী তথা এলাকার বিধায়ক জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের সম্মান ও ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্যই এ ধরনের মন্তব্য করা হয়েছে।’’ বছর চৌত্রিশের রাহুল বারাসতের একটি গেঞ্জি কারখানার কর্মী। সে কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত নয় বলে জানিয়েছে। তার পরিবারের সদস্যদেরও একই বক্তব্য। যদিও খাদ্যমন্ত্রী জানান, গোটা ঘটনার পিছনে বিজেপির মদত রয়েছে। তাঁরা রাজনৈতিক ভাবে এই চক্রান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাবেন। বিজেপির বারাসত সাংগঠনিক জেলার সহ-সভাপতি বিপ্লব হালদার অবশ্য বলেন, ‘‘মানুষই ওঁকে চোর বলছেন। আমরা কেন এ সব বলতে যাব। বিজেপি নীচু সংস্কৃতিতে বিশ্বাস করে না।’’