• অগ্নি রায়, প্রেমাংশু চৌধুরী
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দিল্লি ডায়েরি

Delhi Diaries

বাজপেয়ীর পর এ বার কি তবে নরসিংহ রাও

লকডাউনে থমকে গিয়েছিল অটলবিহারী বাজপেয়ীর পূর্ণাবয়ব তৈলচিত্রের কাজ। আনলক পর্বে ফের তা শুরু হয়েছে। অগস্টে তাঁর দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকীতে ছবিটি ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশনস (আইসিসিআর)-এর দেওয়ালে বসার কথা। সংস্থার প্রেসিডেন্ট, বিজেপি নেতা বিনয় সহস্রবুদ্ধের পরিকল্পনা। আইসিসিআর-এ হঠাৎ বাজপেয়ী কেন, সেটাও মাথা খাটিয়ে বার করেছেন সহস্রবুদ্ধে, যাতে সংস্থার আইনকানুনে না আটকায়। বাজপেয়ী ছিলেন আইসিসিআর-এর প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট। কিন্তু এক প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী পি ভি নরসিংহ রাও-ও তো আইসিসিআর-র প্রেসিডেন্ট ছিলেন! সম্প্রতি ‘মন কি বাত’-এ তাঁর প্রশংসায় পঞ্চমুখ নরেন্দ্র মোদী। জল্পনা, গাঁধী পরিবারকে বিঁধতে এ বার নরসিংহ রাওকে অস্ত্র করছে বিজেপি। বাজপেয়ীর পর, মোদী জমানায় আইসিসিআর-এর দেওয়ালে কি নরসিংহ রাওয়ের ছবি শোভা পাবে!

দাও ফিরে

প্রাক্তন: অটলবিহারী বাজপেয়ী ও পি ভি নরসিংহ রাও

করোনা বদলে দিয়েছে বিদেশমন্ত্রকের সাংবাদিক সম্মেলনের ধরন। অন্যান্য মন্ত্রকে কোনও কোনও ক্ষেত্রে মুখোমুখি বৈঠক হলেও, বিদেশমন্ত্রক এখনও জ়ুম আর ইউটিউব নির্ভর। ভারত-চিন চলতি সঙ্কটে বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্রের বক্তব্যের গুরুত্বও এখন বেড়ে গিয়েছে। তবে জ়ুম-এ সাংবাদিক সম্মেলন হলেও কথার পিঠে প্রশ্ন হচ্ছে না। আগে থেকে পাঠানো প্রশ্ন বিষয়ভিত্তিক ভাবে বেছে, বিবৃতির ঢঙেই এক বারে উত্তর দিচ্ছেন মুখপাত্র। সাংবাদিক শিবিরে হাহুতাশ, দাও ফিরে পুরাতন প্রথা, লও এ জ়ুম-সম্মেলন!

আতিথেয়তা

আহমেদ পটেলের মাদার টেরিজা ক্রেসেন্ট রোডের বাড়িতে ইডি-র হানা চলছে। সকাল থেকে শুরু, দুপুর গড়িয়ে বিকেল। সনিয়া গাঁধীর ডান হাত বলে পরিচিত কংগ্রেস নেতার জেরা চলছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা। বাইরে অপেক্ষায় থাকা সাংবাদিকরা দিল্লির গরমে ক্লান্ত, বাড়ির ভিতর থেকে এক কর্মী চা, জল নিয়ে বেরিয়ে এলেন। সকলের কাছে পৌঁছে গেল গরম চায়ের কাপ, সঙ্গে সামোসা। বাড়ির কর্তাকে যখন ইডি দুর্নীতির অভিযোগে জেরা করছে, তখনও এমন আতিথেয়তা! পর পর দু’দিন এমন আতিথেয়তা দেখে সাংবাদিকদের মধ্যেই প্রশ্ন, শেষ হবে এমন ঘটেছে? উত্তরও মিলল, কংগ্রেসেরই নেতা, হরিয়ানার ভূপিন্দর সিংহ হুডাকে সিবিআই জেরার সময়। দিল্লিতে যখন তাঁর জেরা চলছে, বাইরে অপেক্ষমাণ সাংবাদিকদের তাঁর বাগানের পেয়ারা খাইয়েছিলেন হরিয়ানার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

নতুন রেকর্ড

‘আমি একটা রেকর্ড করছি,’ ভিডিয়ো কনফারেন্সে সাংবাদিক সম্মেলনে ঘোষণা কংগ্রেস নেতা অভিষেক মনু সিঙ্ঘভির। কী রেকর্ড? পশ্চিমবঙ্গ থেকে রাজ্যসভার সাংসদের জবাব, ‘আমার আগে বোধহয় আর কোনও কোভিড পজ়িটিভ রোগী সাংবাদিক সম্মেলন করেননি।’ দুঁদে আইনজীবী মনু সিঙ্ঘভি সুপ্রিম কোর্টে ভার্চুয়াল শুনানিতে হাতে গ্লাভস পরে হাজির হচ্ছিলেন। কিন্তু কোভিড পজ়িটিভ হওয়ায় তাঁকে গৃহবন্দি থাকার নির্দেশ দিয়ে নোটিস পড়েছিল বাড়ির বাইরে। সেই নোটিস ছেঁড়া অবস্থায় রাস্তায় গড়াগড়ি খেতে দেখে প্রশ্ন উঠেছিল, মনু সিঙ্ঘভি কেন নিয়ম মানছেন না! কংগ্রেস নেতা জানিয়েছেন, তিনি সকলের সঙ্গে দূরত্ব রেখে চলছেন। গুরুতর কোনও শারীরিক উপসর্গও নেই। তাই ‘শো মাস্ট গো অন’! 

পরিদর্শন: নগর বনে প্রকাশ জাভড়েকর

বন ও বিজেপি

রাজধানী শহরের মধ্যেই ঘন জঙ্গল। ঘটনাচক্রে তার ঠিকানা বিজেপি-র সদর দফতরের সামনে। দিল্লিতে কেন্দ্রীয় পরিবেশমন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর এমনই ‘নগর বন’ তৈরির কাজ ঘটা করে শুরু করে দিলেন। শহর থেকে সবুজ মুছে যাচ্ছে, অক্সিজেনের জোগান দরকার। তাই এই উদ্যোগ। জাপানের উদ্ভিদবিজ্ঞানী আকিরা মিয়াওয়াকির দেখানো পথে ‘মিয়াওয়াকি পদ্ধতি’তে বন তৈরি হচ্ছে নানান উচ্চতার গাছ গায়ে গায়ে লাগিয়ে। এই জঙ্গলে রোদ ঢুকতে পারবে শুধু উপর থেকেই, আশপাশ থেকে নয়। ৪২০০ বর্গমিটার এলাকায় প্রায় ১২০০ গাছ পোঁতা হয়েছে। কিন্তু গোটা শহরে অনেক জায়গা থাকতে হঠাৎ বিজেপি সদর দফতরের সামনেই সবুজ ঘাসে ঢাকা পার্কে এমন জাপানি অরণ্য কেন! এর কি আলাদা কোনও গুরুত্ব আছে? সরকারের জবাব, আসলে কাছেই আইটিও। যেখানে দিল্লির বায়ুদূষণ সব থেকে বেশি। সেটাই আসল কারণ।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন