সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আটকে রয়েছি, আমাদের উদ্ধার করুন

এই লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের থেকে তাঁদের অবস্থার কথা, তাঁদের চারপাশের অবস্থার কথা জানতে চাইছি আমরা। সেই সূত্রেই নানান ধরনের সমস্যা পাঠকরা লিখে জানাচ্ছেন। পাঠাচ্ছেন অন্যান্য খবরাখবরও। সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন, এবং অবশ্যই আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা ম‌‌নোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি।

workers
প্রতীকী ছবি।

চিঠি এক) চিকিত্সা করাতে এসে আটকে পড়েছি মুম্বইয়ে

আমি মনোরঞ্জন কংসবণিক। বয়স ৭২।  গত ফেব্রুয়ারিতে স্ত্রীর চিকিত্সা করাতে মুম্বই এসেছি। স্ত্রী ক্যানসারের রোগী। লকডাউনের জেরে আটকে পড়েছি। আমার বয়স ৭২। খুব অসহায় লাগছে। বাড়ি ফিরতে চাই। আমরা বর্তমানে লালবাগ জৈন ভবনে রয়েছে। আমাদের বাড়ি চাকদহে। দয়া করে, আমাদের বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করুন।

মনোরঞ্জন কংসবণিক

ফোন নম্বর- ৯৭৩৪৯৬৪৪৩৯

চিঠি দুই) বেঙ্গালুরুতে আটকে, বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করুন

আমি বেঙ্গালুরুতে একটি রেস্তরাঁয় স্টোর সিকিউরিটি গার্ডের কাজ করি। রেস্তরাঁটি একটি শপিং মলের মধ্যে। কিন্তু লকডাউনের জেরে বন্ধ থাকায় কাজ নেই আমার। পশ্চিমবঙ্গের আরও অনেকে রয়েছেন এখানে। একটা ঘর ভাড়া নিয়ে আছি সকলে। হাতে টাকা নেই। বাড়ি ফিরতে চাই। দয়া করে ব্যবস্থা করুন। আমার বর্তমান ঠিকানা-কাবেরী নগর, মারিয়াম টেম্পল, মহাদেবপুরা, কে আর পুরম রেলস্টেশনের কাছে। বেঙ্গালুরু-৫৬০০৪৮

প্রদীপ দেবনাথ

ফোন-৮৭৭৭৩৮২০৩১

চিঠি তিন) আমরা খুব অসহায়, খুব কষ্টে আছি

আমরা ভেলোরে চিকিৎসা করতে আজ একমাসের বেশি সময় আটকে আছি। এদিকে টাকা পয়সা সব শেষ হয়ে গিয়েছে। আমাদের আর ঘর ভাড়া দেওয়ার মতো টাকাও নেই। আমরা খুব অসহায় ভাবে দিন কাটাচ্ছি। এর আগে আমি এখানে বলে কিছু সাহায্য পেয়েছি। সেটা দিয়ে কোনও মতে আগের মাসের ঘর ভাড়াটা দিতে পেরেছি। কিন্তু এ ভাবে আর কত দিন আমাদের এখানে অসহায় ভাবে দিন কাটাতে হবে? আমার সঙ্গে আমার বাবা এবং এক কাকুও আছেন এবং মানসিক ভাবে দিন দিন খুব দুর্বল হয়ে পড়ছেন। আমিও মানসিক ভাবে খুব দুর্বল হয়ে পড়ছি। দয়া করে আমাদের বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করুন। আমাদের বর্তমান ঠিকানা-সাইদাপেট, এএমআর গেস্ট হাউস। ভেলোর-৬৩২০১২

ফিরোজ আহমেদ

ফোন-৯৭৩৫৭৩৬৪৮৯

 চিঠি চার) ভেলোরে আটকে বাবা-মা, ফেরানোর ব্যবস্থা করুন

চিকিৎসা করাতে গিয়ে ভেলোর এ আটকে পড়েছে আমার বাবা মা। দু’জনেই সিনিয়র সিটিজেন। প্রায় গত দেড় মাস ধরে থাকতে থাকতে অর্থনৈতিক অবস্থা খুবই খারাপ হয়ে পড়ছে। প্রতি দিনের হোটেলের ভাড়া, দৈনন্দিন প্রয়োজনের খরচ মেটানো প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়ছে। সরকারকে অনুরোধ করছি এবার প্লিজ আমার মা-বাবাকে ফেরানোর ব্যবস্থা করুন।

যোগাযোগ- ৭০০১৩৩৩৯৪০

চিঠি পাঁচ) ভাতিণ্ডাতে আমি আর ভাই আটকে আছি, উদ্ধার করুন

আমার নাম - রাজু তন্তুবায়, বাবার নাম - কান্দন তন্তুবায়, বাড়ি -শুশুনিয়া, থানা -ছাতনা , জেলা – বাঁকুড়া। আমি পাঞ্জাবের ভাতিণ্ডাতে হোটেলে কাজ করি। আমাদের এখানে কাজ কিছু হচ্ছে না। না ভাল করে খেতে পাচ্ছি, না কোথাও যেতে পারছি।  তাই সরকারের কাছে অনুরোধ আমাদেরকে বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করুন। আমি আর আমার ভাই,  দু’জনেই এখানে থাকি ।

রাজু তন্তুবায়

পাঞ্জাব, ভাটিণ্ডা

ফোন নম্বর -৯৮৩২৪৭৮৪২৬

চিঠি ছয়) কাজ নেই, খাবার নেই, খুব কষ্টে আছে ভাই

আমার ভাই রঞ্জিত সামন্ত গুজরাতের সুরতে আছে। ওখানে করোনার প্রভাব বেশি। এবং কর্মসংস্থা বন্ধ থাকার জন্য কাজ নেই। খাবার নেই। তাই আপনাদের মাধ্যমে সরকারকে অনুরোধ করছি ভাইকে বাড়িতে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করলে কৃতজ্ঞ থাকব। ধন্যবাদ।

রঞ্জিত সামন্ত

ফোন নম্বর ৮৫১১৩৪১০৬৭

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।​)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন