Advertisement
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২
Abhishek Banerjee

Bengal polls: ‘বাংলা ছেড়ে ছত্তীসগঢ় সামলান’, মাওবাদী হামলা নিয়ে অমিতকে তোপ অভিষেকের

শনিবার থেকে মাওবাদীদের সঙ্গে চলা সংঘর্ষে সুকমা-বিজাপুর সীমানায় এ পর্যন্ত ২২ জন জওয়ান প্রাণ হারিয়েছেন। তা নিয়েই শাহকে আক্রমণ অভিষেকের।

জয়নগরের জনসভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়।

জয়নগরের জনসভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
জয়নগর শেষ আপডেট: ০৪ এপ্রিল ২০২১ ২৩:২৯
Share: Save:

ছত্তীসগঢ়ের সুকমা-বিজাপুর সীমানায় বাহিনীর উপর মাওবাদী হামলা নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে তোপ দাগলেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। জয়নগরের জনসভা থেকে বাংলার কথা না ভেবে, শাহকে ছত্তীসগঢ়ের পরিস্থিতি সামলানোর কথা বলেছেন অভিষেক। ছত্তীসগঢ়ের পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগও প্রকাশ করেছেন অভিষেক।

শনিবার থেকে মাওবাদীদের সঙ্গে চলা সংঘর্ষে সুকমা-বিজাপুর সীমানায় এ পর্যন্ত ২২ জন জওয়ান প্রাণ হারিয়েছেন। মাওবাদীদের সেই ভয়াবহ হামলার কথা টেনে রবিবার জয়নগর থেকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে আক্রমণ শানিয়েছেন অভিষেক। অমিতকে নিশানা করে অভিষেকের তোপ, ‘‘ছত্তীসগঢ়ে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের উপর হামলার ঘটনার পর সেখানে উপস্থিত না থেকে দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ পশ্চিমবঙ্গে এসে মিটিং-মিছিল করে যাচ্ছেন। আবার বড় বড় কথা বলছেন। ওঁরা আবার দেশপ্রেম শেখাচ্ছেন।’’ প্রসঙ্গত জয়নগরের তৃণমূল প্রার্থী বিশ্বনাথ দাসের সমর্থন রবিবার জনসভা করেন অভিষেক।

রবিবার কলকাতায় সাংবাদিক বৈঠক করে অভিষেকের বিরুদ্ধে কয়লা, গরু এবং বালি পাচার-কাণ্ডে ৯০০ কোটি টাকা তোলাবাজির করার অভিযোগ তুলেছেন গেরুয়াশিবিরের নেতা শুভেন্দু অধিকারী, দীনেশ ত্রিবেদী এবং রাজ্য বিজেপি-র সহ-পর্যবেক্ষক অমিত মালব্য। ঘটনাচক্রে তার কিছু পরেই জয়নগর থেকে বিজেপি-কে একের পর এক তোপ দেগেছেন অভিষেক। তিনি দলীয় কর্মী-সমর্থকদের বলেন, ‘‘আগামী ৬ এপ্রিল বিজেপি নেতাদের জয়নগরের মোয়া খাওয়াতে হবে। জয়নগরের এত বড় মোয়া খাওয়াব যে ২ মে ভোট বাক্স খুললেই বিজেপি চোখে সর্ষেফুল দেখবে।’’

রবিবার ছিল রাজ্যে তৃতীয় দফার ভোটের প্রচারের শেষ দিন। তৃতীয় দফার ভোটপ্রচারের শেষলগ্নে বিজেপি-কে ঝাঁঝালো আক্রমণ শানান অভিষেক। তাঁর দাবি, ‘‘জয়নগরের মাটি বহিরাগতদের কাছে বশ্যতা স্বীকার করবে না। এই মাটি জয়নগরে মানুষের আবেগকে মধ্যপ্রদেশের ও দিল্লির নেতাদের কাছে বিক্রি করবে না।’’ দিন কয়েক আগে জয়নগরের মাঠে সভা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তা নিয়ে মোদীকে অভিষেকের খোঁচা, ‘‘কয়েক দিন আগে জয়নগরের মানুষ অধীর আগ্রহে শুনছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কথা। কিন্তু এখানকার মানুষের জন্য কী ঘোষণা করেছেন ওই সভা থেকে?’’ অভিষেকের দাবি, ‘‘বিজেপি বলছে তৃণমূলকে হঠাতে হবে। সিপিএম বলছে তৃণমূলকে হঠাতে হবে। কিন্তু মানুষের মন থেকে তৃণমূলকে হঠানো অত সহজ নয়।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.