×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৮ মে ২০২১ ই-পেপার

Bengal Polls 2021: শীতলকুচির ঘটনা নিয়ে নাম না করে তৃণমূলকে দোষারোপ ‘মহাগুরু’র, ‘গণহত্যা’ বলছে জোড়াফুল

নিজস্ব সংবাদদাতা
বর্ধমান ১১ এপ্রিল ২০২১ ২১:২৮
রায়নার সভায় মিঠুন চক্রবর্তী।

রায়নার সভায় মিঠুন চক্রবর্তী।
নিজস্ব চিত্র

কোচবিহারের শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে ৪ জনের মৃত্যু নিয়ে নাম না করে তৃণমূলকেই দুষলেন বিজেপি-তে যোগ দেওয়া অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। রবিবার বর্ধমানের জনসভা থেকে তাঁর অভিযোগ, ‘উস্কানির ফাঁদে’ পা দিয়েই ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। মিঠুনের এ হেন মন্তব্য শোনা মাত্র তাঁকে পাল্টা জবাব দিয়েছে তৃণমূলও।
রবিবার বর্ধমানের রায়নায় বিজেপি প্রার্থী মানিক রায়ের সমর্থনে সভা করেন মিঠুন। সেখানে নিজস্ব ভঙ্গিতে তৃণমূলের নাম না করে বলেন, ‘‘শনিবার শীতলকুচিতে যে ঘটনা ঘটেছে, তার জন্য আমার মনটা খুব খারাপ হয়ে রয়েছে। সিংহাসন আগলে রাখার জন্য ওরা উস্কানি দিচ্ছে। সেই উস্কানির ফাঁদে পা দিয়ে ৪ জন মায়ের কোল খালি হল।’’ এর পরই তাঁর মন্তব্য, ‘‘এই ভাবে যদি কেউ রাজনীতি করে, তা হলে আমরা কী করতে পারি! আমাদের বিজেপি-র কেউ উস্কানি দেওয়ার কথা বলছেন না।’’ যদিও, রবিবারই বরাহনগরের সভা থেকে বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‘ভয় দেখিয়ে রাজনীতি করার দিন চলে গিয়েছে। ভয় উপেক্ষা করে মানুষ ভোট দিচ্ছেন। ১৭ তারিখ সকালেও লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিন। বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে। কেউ লাল চোখ দেখাতে পারবে না। আমরা আছি। আর যদি বাড়াবাড়ি করে, শীতলকুচিতে দেখেছেন কী হয়েছে! জায়গায় জায়গায় শীতলকুচি হবে।’’ দিলীপের এ হেন মন্তব্য নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে।
মিঠুনের মন্তব্য নিয়ে বর্ধমান জেলার তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র প্রসেনজিৎ দাস বলেন, ‘‘শীতলকুচিতে গণহত্যা হয়েছে। যাঁরা গুলি চালিয়েছেন, তাঁরা তো সকলে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। পায়ে গুলি না করে তা একেবারে বুক লক্ষ্য করে চালানো হল। তার মানে খুনের জন্যই গুলি করা হয়েছে। মায়ের কোল খালি করছে বিজেপি-ই। ক্ষমতার অপব্যবহার করে গুলি করে মানুষ খুন করা হচ্ছে। মানুষ এর জবাব দেবেন।’’

Advertisement
Advertisement