Advertisement
১৮ জুলাই ২০২৪
WB Health Recruitment 2023

১৫০০টি শূন্যপদে কর্মী নিয়োগ করতে চলেছে স্বাস্থ্য দফতর, কোন পদের জন্য?

মোট শূন্যপদ রয়েছে ১৫০০টি। প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা বেতন দেওয়া হবে।

Sasthya bhawan

স্বাস্থ্য ভবন। ছবি: সংগৃহীত।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৯ অগস্ট ২০২৩ ১৪:০৩
Share: Save:

একাধিক শূন্যপদে রাজ্যে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দফতরে কর্মী নিয়োগ করা হবে। সেই মর্মে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের প্রশাসনিক ওয়েবসাইটে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে।

কমিউনিটি হেলথ অফিসার পদে কর্মী নিয়োগ করা হবে। ন্যাশনাল হেলথ মিশনের অধীনে চুক্তির ভিত্তিতে কাজ করতে হবে। মোট শূন্যপদ রয়েছে ১৫০০টি। এর মধ্যে তফসিলি জাতির জন্য ৩৩০, তফসিলি জনজাতির জন্য ৯০, ওবিসি (এ)-এর ১৫০টি, ওবিসি (বি)-এর ১০৫টি, সাধারণ বিভাগের জন্য ৭৮০টি এবং বিশেষ ভাবে সক্ষম প্রার্থীদের জন্য ৪৫টি শূন্যপদ বরাদ্দ রয়েছে। প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা বেতন দেওয়া হবে।

আবেদনের জন্য কী যোগ্যতা প্রয়োজন?

যে কোনও স্বীকৃত প্রতিষ্ঠান থেকে বিএসসি (নার্সিং) উত্তীর্ণ হতে হবে। পাশাপাশি, সার্টিফিকেট প্রোগ্রাম ইন কমিউনিটি হেলথ (সিপিসিএইচ)-এর শংসাপত্র থাকা দরকার। ওয়েস্ট বেঙ্গল নার্সিং কাউন্সিলের অধীনে নাম নথিভুক্ত থাকতে হবে। প্রার্থীদের পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হওয়া প্রয়োজন। বাংলা ভাষা লিখতে, পড়তে এবং বলতে জানতে হবে। প্রার্থীর বয়স ৪০ বছরের মধ্যে হতে হবে। কম্পিউটারের কাজে দক্ষতা থাকলে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

কী ভাবে আবেদন করবেন?

প্রার্থীকে প্রথমে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের ওয়েবসাইটে যেতে হবে। ‘হোমপেজ’ থেকে ‘রিক্রুটমেন্ট’-এ গেলে সংশ্লিষ্ট বিজ্ঞপ্তিটি দেখা যাবে। সেখানে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী অনলাইনে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। পাশাপাশি, আবেদনমূল্যও জমা দেওয়া দরকার। ২০ অগস্ট পর্যন্ত আবেদনপত্র জমা দেওয়া যাবে। পরবর্তী প্রয়োজনের জন্য আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়ে যাওয়ার পর আবেদনপত্র ডাউনলোড করে রেখে দেওয়া দরকার।

নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য এবং শর্তাবলি জানতে রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগের ওয়েবসাইটটি দেখতে পারেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE