Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

জন্মদিনে রাজের অফুরান ভালবাসা, বিশেষ উপহার আর ইউভানকে নিয়ে মুখ খুললেন শুভশ্রী

ইউভান রাজ আর বাড়ির কাছের মানুষ নিয়েই জন্মদিনটা কাটাতে চান শুভশ্রী।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০৩ নভেম্বর ২০২০ ১৬:১১

সোশ্যাল মিডিয়া সেজে উঠেছে তাঁর জন্মদিনে। শ্রাবন্তী থেকে মীর, কেউ বাদ যাননি তাঁদের প্রিয় অভিনেত্রীকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে।আনন্দবাজার ডিজিটালকে রাজ চক্রবর্তী বললেন, “শুভ কিন্তু জন্মদিনেও ইউভানকে নিয়ে ব্যাস্ত। সারাদিন সঙ্গে। জন্মদিনে ওর মোবাইল ফোন ওর থেকে দূরে। ও শাশুড়ির সঙ্গে গল্প করবে, সেটাই ওর আনন্দের। কাছের বন্ধুদের বাড়িতে ডেকে সময় কাটাতে সবচেয়ে ভালবাসে শুভ। বাড়ি থেকে একেবারেই বেরতে চায় না।” রাজ যখন আনন্দবাজার ডিজিটালের সঙ্গে ফোনে কথা বলছেন, তখন পাশ দিয়ে ইউভানের জন্য দুধ বানিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন ‘বার্থ ডে’ গার্ল! শুভেচ্ছা জানানোর পরে বললেন, “রাজ আমায় আজ আই ফোন ১২ উপহার দিয়েছে। আর জন্মদিনের অনেক ভালবাসা। এত ভালবাসা পাওয়াই সবচেয়ে আনন্দের!” খুশির সুর শুভশ্রীর গলায়। ইউভানের প্রসঙ্গ উঠতেই বললেন, “ভীষণ ক্যামেরা ফ্রেন্ডলি হয়েছে ও। ওর ডাক্তারের সঙ্গে যখন হোয়াটসঅ্যাপ কল করে, তখন রীতিমতো ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে তাকিয়ে কথা বলে।”

ইউভান রাজ আর বাড়ির কাছের মানুষ নিয়েই জন্মদিনটা কাটাতে চান শুভশ্রী। রাজের সঙ্গে আনন্দবাজার ডিজিটালের কথায় কথায় বেজে উঠল কলিং বেল। শুভশ্রীর জন্মদিনের উপহার এসেছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পক্ষ থেকে… শুরু হল শুভশ্রীর জন্মদিন!

প্রসঙ্গত, প্রেম প্রকাশ্যে আসার পরেই সাতপাক ঘোরা থেকে মা-বাবা হওয়া-- সব অভিজ্ঞতাই অনুরাগীদের সঙ্গে শেয়ার করেছেন চক্রবর্তী দম্পতি। ফলে, তাঁদের সব কিছুই লাইমলাইটে। হলি-বলিউডের ট্রেন্ড মেনে বেবি শাওয়ার, বিজ্ঞাপনী ছবির শুটিং-- কিছুই বাদ দেননি তাঁরা। তাই তাঁদের সন্তানও যে জন্ম থেকে জনপ্রিয়তার জোয়ারে ভাসবে, এটাই স্বাভাবিক।

Advertisement

আরও পড়ুন: অর্ধেক যাত্রী নিয়ে লোকাল চালানোর ভাবনা, টাইম টেবল প্রকাশ শীঘ্রই

অনুরাগীদের উন্মাদনা, সবার প্রাণঢালা শুভেচ্ছা, আশীর্বাদে তৃপ্ত পরিচালক, অভিনেত্রী। সোশ্যালে যৌথভাবে জানিয়েছিলেন, “ধন্যবাদ জানাই সকলক। ছোট্ট ইউভানকে এত ভালবাসার জন্য। প্রত্যেককে আলাদা করে রিপ্লাই করে উঠতে পারিনি বলে দুঃখিত। আসলে আমরা নিজেরাই এই বহু প্রতিক্ষিত মুহূর্তকে পাওয়ার আনন্দ সামলে উঠতে পারিনি। বাবা-মা হওয়ার এই আনন্দ ভগবানের আশীর্বাদ। আমরা দু’জনেই সেই আনন্দ ভাগ করে নিচ্ছি। এ ভাবেই আমাদের ছোট্ট ইউভানের জন্য সবার ভালবাসা ও আশীর্বাদ চাই। আবারও ধন্যবাদ জানাই”।

আরও পড়ুন

Advertisement