শুক্রবার মুক্তি অর্জুল রামপালের ‘ড্যাডি’র। ছবিটি একটি বায়োপিক। সপ্তাহান্তে ছবিটি দেখার পিছনে বেশ কয়েকটি বিশেষ কারণ রয়েছে। এক কথায় ছবিতে চমক রয়েছে।

এক শ্রমিক পরিবারের ছেলে পা রেখেছিল মুম্বইয়ের অপরাধ জগতে। একটা সময়ে সেই ছেলেই হয়ে ওঠে বাণিজ্যনগরীর ত্রাস। নাম অরুণ গুলাব গাওলি। তাঁর জীবন নিয়েই এই ছবি ‘ড্যাডি’। মুখ্য চরিত্রে রয়েছেন অর্জুন রামপাল।

অরুণ গাওলির রূপে অর্জুন রামপাল। ছবি— সংগৃহীত।

ছবিটি একটি বায়োপিক। তবে যাঁকে নিয়ে ছবি, সেই অরুণ গুলাব গাওলি কিন্তু এখনও জীবিত। আপাতত মুম্বইয়ে জেলবন্দি গাওলি। ছবির শুটিংয়ের আগে অর্জুল রামপাল তাঁর সঙ্গে দেখাও করেছিলেন।

আরও পড়ুন, অভিনব বিন্দ্রার বায়োপিকে হর্ষবর্ধন কপূর

আরও পড়ুন, বলিউডের আন্ডারওয়ার্ল্ড যোগ

ছবিতে অরুণ গাওলি থেকে ‘ড্যাডি’ হয়ে ওঠার গল্প তুলে ধরা হয়েছে। রমা নায়েক ও বাবু রশিমের হাত ধরে অপরাধ জগতে পা বাড়িয়েছিলেন গাওলি। রমা নায়েক ও বাবু রশিমের মৃত্যুর পর অরুণই হয়ে ওঠেন বম্বের সেই সময়ের ত্রাস ‘বাইকুল্লা কোম্পানি’র মাথা। আটের দশকের বম্বেতে তখন দাউদের আধিপত্য। কিন্তু মাথা নোয়াননি গাওলি। মুম্বইয়ের ডোগরিকে নিজের পুরোটা দিয়ে আগলে রেখেছিলেন। আর তাই তাঁকে স্থানীয়রা ‘ড্যাডি’ বলেই ডাকতে শুরু করেন। এর পর অপরাধ জগত থেকে সরে এসে রাজনীতির আঙিনায় পা রাখা। ভোটে দাঁড়িয়ে বিধায়ক হওয়া।

অভিনেতা অর্জুন রামপাল প্রথম বার একটি বায়োপিকে অভিনয় করছেন। তাঁর বিপরীতে রয়েছেন তামিল অভিনেত্রী ঐশ্বর্যা রাজেশ। ‘ড্যাডি’ ছবিতেই প্রথম বলিউডে কাজ করছেন তামিল তারকা অভিনেত্রী। ছবিতে অরুণের স্ত্রী আশা গাওলির চরিত্রে দেখা যাবে তাঁকে।

তামিল অভিনেত্রী ঐশ্বর্যা রাজেশ। ছবি: ঐশ্বর্যার ইনস্টাগ্রাম পেজের সৌজন্যে।

পরিচালক অসীম অহলুওয়ালিয়া ছবিতে পুরনো বম্বের মতো সেট তৈরি করেছেন। আর যদি আট এর দশকের হারিয়ে যাওয়া মেলোডির আপনি ফ্যান হন, তা হলে ‘ড্যাডি’ ছবির ‘জিন্দেগি মেরি ড্যান্স ড্যান্স’ গানটি ভাল লাগতে পারে। বাপ্পি জমানার সুরেলা জগতে ফিরে গিয়ে সামান্য নস্ট্যালজিকও হয়ে পড়তে পারেন।