Advertisement
২০ এপ্রিল ২০২৪
Aindrila Sharma

গাছে গাছে বেঁচে থাকু্ন ঐন্দ্রিলা, অভিনেত্রীর মা শিখা শর্মার নতুন উদ্যোগ

আর এক মাস পরেই প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী ঐন্দ্রিলার। মেয়ের স্মৃতি সজীব রাখতে কী ভাবে উদ্যোী হলেন অভিনেত্রী মা শিখা শর্মা?

Aindrila Sharma\\\\\\\\\\\\\\\'s Mother took part in plantation programme in berhampore for her daughter.

অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা ও মা শিখা শর্মা। ছবি: সংগৃহীত।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
বহরমপুর শেষ আপডেট: ০৮ অক্টোবর ২০২৩ ১৯:৩১
Share: Save:

আর কয়েক মাস পরেই এক বছর হবে। এতগুলি মাস ছোট মেয়ের স্মৃতি আঁকড়ে বেঁচে আছেন অভিনেত্রীর মা শিখা শর্মা। ক্যানসার কেড়ে নিয়েছে বছর ২৩-এর মেয়েটিকে। অভিনেত্রীর মা নিজেও ক্যানসার আক্রান্ত। অভিনেত্রীর দিদি ঐশ্বর্যা পেশায় চিকিৎসক। এই মুহূর্তে ছোট মেয়েকে ছাড়াই ছন্দে ফেরার চেষ্টা করছে শর্মা পরিবার। মাস কয়েক আগেই পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে মরণোত্তর কৃতী সম্মান পেয়েছেন অভিনেত্রী। সে দিন পুরস্কার নিতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন প্রয়াত অভিনেত্রীর মা শিখা। তবে এ বার মেয়েকে সকলের মধ্যে বাঁচিয়ে রাখার জন্য নতুন ভাবে উদ্যেগী হলেন তিনি। মেয়ের স্মৃতিতে বৃক্ষরোপণ করলেন শিখা।

বহরমপুরের মেয়ে ঐন্দ্রিলা। বাবা পেশায় চিকিৎসক, মা নার্স। এ বার মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিজের হাতেই মেয়ের স্মৃতিতে বৃক্ষরোপণ করলেন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলার মা। মায়ের দাবি, গাছে গাছেই বেঁচে থাকুক মেয়ে। বহরমপুরের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের উদ্যোগে হল এই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি। এ দিন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল চত্বরে বেশ কিছু বৃক্ষরোপণ করা হয়। অভিনেত্রীর আবাসে দু’টি পোষ্য ছিল, এ ছাড়াও ফ্ল্যাট সাজানো ছিল গাছে। অভিনেত্রীর মা বৃক্ষরোপণ করতে গিয়ে বলেন, ‘‘কুকুর আর গাছ ছিল ওর জীবন, তাই গাছে গাছে বেঁচে থাকুক ঐন্দ্রিলা।’’

২০২২ সালের ২০ নভেম্বর শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন ঐন্দ্রিলা। টানা ১৯ দিন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। দ্বিতীয় বার ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার পর আর সুস্থ করে ঘরে ফেরানো যায়নি নায়িকাকে। বাড়ির ছোট মেয়েকে হারানোর শোকের মাঝেইএই বিষয়ে উদ্যোগী হয়েছেন অভিনেত্রীর মা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE