Advertisement
১৯ এপ্রিল ২০২৪
Aishwarya Rai Bachchan-Shweta Bachchan

অম্বানীদের বাড়ির অনুষ্ঠানে কাছাকাছি ঐশ্বর্যা-শ্বেতা, অশান্তির অবসান বচ্চন পরিবারে?

অম্বানীদের বাড়ির অনুষ্ঠানে যেন মিথ্যে হল সব জল্পনা। কোন খাতে শ্বেতা-ঐশ্বর্যার সম্পর্ক?

aishwarya rai bachchan and shweta bachchan showing their bond in Jamnagar

(বাঁ দিকে) ঐশ্বর্যা রাই বচ্চন। অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে শ্বেতা বচ্চন নন্দা (ডান দিকে)। ছবি: সংগৃহীত।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৪ মার্চ ২০২৪ ১৭:৪৯
Share: Save:

বচ্চন পরিবারে সদস্যদের নাকি বনিবনা হচ্ছে না একেবারেই। গত কয়েক মাস ধরে মায়ানগরী সরগরম এই খবরে। গত দেড় দশকের বেশি সময়ে একাধিক বার বচ্চন পরিবারের সদস্যদের সম্পর্কের সমীকরণ নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছে বলিউডে। শাশুড়ি জয়া বচ্চন এবং ননদ শ্বেতা বচ্চন নন্দার সঙ্গে নাকি আদায়-কাঁচকলায় সম্পর্ক ঐশ্বর্যার, এমন কানাঘুষোও শোনা গিয়েছে বহু বার। গত কয়েক মাসে আরও বেড়েছে সেই গুঞ্জন। বলিপাড়ার অন্দরের খবর, দিন দিন নাকি তিক্ততা বেড়েই চলেছে ঐশ্বর্যা এবং শ্বেতার মধ্যে। গত বছরের দীপাবলির অনুষ্ঠানে মেয়ে আরাধ্যাকে নিয়ে শহর ছেড়েছিলেন ঐশ্বর্যা। সেই সময় তাঁর জায়গায় অমিতাভের সঙ্গে দীপাবলির পুজোয় অংশগ্রহণ করেছিলেন শ্বেতাই। কানাঘুষো, সেই কারণে নাকি আরও অশান্তি আরও বেড়েছে তাঁদের মধ্যে। কিন্তু অম্বানীদের বাড়ির অনুষ্ঠানে যেন মিথ্যে হল সবটা। কোন খাতে ননদ-ভাজের সম্পর্ক?

৩ মার্চ রবিবার অনন্ত অম্বানী ও রাধিকা মার্চেন্টের প্রাক্-বিবাহ অনুষ্ঠানের শেষ দিনে পৌঁছয় বচ্চন পরিবার। ননদ, শ্বশুর-শাশুড়ি, মেয়ে আরাধ্যা, স্বামী অভিষেক বচ্চনের সঙ্গেই একই বিমানে জামনগর পৌঁছন ঐশ্বর্যা। বিমানবন্দর থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরই আলাদা গাড়িতে উঠে যান শ্বেতা। স্বামী অভিষেককে নিয়ে আলাদা হয়ে যান ঐশ্বর্যা। তবে বেরোনোর সময় ননদের সঙ্গে হেসে হেসেই কথা বলতে দেখা যায় অভিনেত্রীকে। গত বছরে রটেছিল, মুখ দেখাদেখি বন্ধ শ্বেতা-ঐশ্বর্যার। এ দিনের জামনগর বিমানবন্দরের এই ছবি যেন স্বস্তি দিয়েছে বচ্চন অনুরাগীদের। শুধু তাই নয়, এ দিনের অনুষ্ঠানে আলোকচিত্রীদের দেখে হেসে অভিবাদন জানান জয়া বচ্চনও। অম্বানীদের অনুষ্ঠানে কি তবে তিক্ততা মিটিয়ে কাছাকাছি বচ্চন পরিবার?

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE