×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জুন ২০২১ ই-পেপার

টুইট করে বায়ুসেনার কাছে ক্ষমা চাইলেন অনিল কপূর

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১০ ডিসেম্বর ২০২০ ১৪:৩২
‘একে ভার্সেস একে’-তে অনিল কপূর।

‘একে ভার্সেস একে’-তে অনিল কপূর।

ভারতীয় বায়ুসেনার কাছে ক্ষমা চাইলেন অভিনেতা অনিল কপূর৷ বুধবার বিকেলে একটি ভিডিয়ো টুইট করে নিজের বক্তব্য রাখলেন তিনি। ‘একে ভার্সেস একে’ ছবিতে বায়ুসেনার পোশাক পরার ধরন এবং সেই পোশাক পরে আপত্তিকর ভাষা ব্যবহার নিয়ে অভিযোগ তুলেছিল ভারতীয় বায়ুসেনা (আইএএফ)।

ক্ষমা চাওয়ার সঙ্গে পোশাক পরা ও ভাষা ব্যবহারের ব্যাখ্যাও দিলেন অনিল কপূর। তাঁর কথায়, ‘আমার ব্যবহারে বায়ুসেনার ভাবাবেগ আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে। কিন্তু সেটি একেবারেই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত নয়। আমি ক্ষমা চাইছি বায়ুসেনার কাছে। বায়ুসেনার পোশাক কেন পরা হয়েছে এবং ওই ধরনের ভাষা কেন ব্যবহার করা হয়েছে, তার প্রেক্ষাপটটি তুলে ধরলে বুঝতে আরও সুবিধা হবে বলে আমার মনে হয়। আমি এই ছবিতে একজন অভিনেতা যে বায়ুসেনার চরিত্রে অভিনয় করছে। শ্যুটিং করত করতে তার কাছে খবর আসে, তার মেয়ে অপহৃত হয়েছে। এর পরের সমস্ত দৃশ্যতে দেখা যাবে একজন বিধ্বস্ত বাবা তার মেয়েকে খুঁজছে। কিন্তু পাচ্ছে না। আর তাই রাগ থেকে সমস্ত আপত্তিকর ভাষা ব্যবহার করে ফেলছে সে। আমি বা ছবির নির্মাতারা, কেউই বায়ুসেনাকে অপমান করতে চাইনি। বায়ুসেনা যে ভাবে স্বার্থহীন ভাবে আমাদের জীবন রক্ষা করেন, তাঁদের প্রতি আমার মনে অঢেল শ্রদ্ধা রয়েছে।’

অনিল কপূরের এই ভিডিয়োর পরে নেটফ্লিক্স কর্তৃপক্ষও ক্ষমা চেয়ে একটি টুইট করে। সেখানে বলা হয়, ‘ভারতীয় বায়ুসেনাকে অপমান করার কোনও উদ্দেশ্য নেই আমাদের। একে ভার্সেস একে ছবিতে অনিল কপূর ও বাকি অভিনেতারা শুধু চরিত্র অনুসারে অভিনয় করছেন। বায়ুসেনার জওয়ানরা আমাদের দেশ ও জীবন রক্ষা করেন। তাঁদের প্রতি অসীম শ্রদ্ধা রয়েছে আমাদের।’

Advertisement
Advertisement