Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

Aparajita Adhya: নতুন বছরে ছোট পর্দায় ফিরবেন অপরাজিতা, ধারাবাহিক না কি সঞ্চালনায়?

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৫:০৩
নতুন বছরে নতুন ভাবে পুরনো দুনিয়ায় ফিরতে চলেছেন অপরাজিতা আঢ্য।

নতুন বছরে নতুন ভাবে পুরনো দুনিয়ায় ফিরতে চলেছেন অপরাজিতা আঢ্য।

অনেক দিন ছোট পর্দা থেকে দূরে। নতুন বছরে তাই নতুন ভাবে পুরনো দুনিয়ায় ফিরতে চলেছেন অপরাজিতা আঢ্য। আনন্দবাজার অনলাইনকে সে কথা জানিয়েছেন অভিনেত্রী। অপরাজিতার যুক্তি, ‘‘আমার অভিনয় শুরু ছোট পর্দা থেকে। ওখানে আমার প্রচুর দর্শক। তাঁরা আমায় দেখতে পাচ্ছেন না। আমিও ওঁদের ভালবাসা পাচ্ছি না। উভয়েই বঞ্চিত হচ্ছি। তাই ২০২২-এ আবার ছোট পর্দায় ফিরব।’’ তাঁর কথায়, ইতিমধ্যেই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলছে। আশা, তাঁর এই ইচ্ছে বাস্তবায়িত হবে। এবং সুযোগ পেলে ধারাবাহিকের পাশাপাশি সঞ্চালনারও খুব ইচ্ছে ছোট পর্দার ‘পাড়ি’র।

তা হলে কি বড় পর্দা থেকে সরে আসবেন অপরাজিতা? একেবারেই না, জানিয়েছেন তিনি। তাঁর মতে, এখন ১৬ দিনে একটি ছবির কাজ শেষ হয়ে যায়। সে ক্ষেত্রে তাঁকে ব্যস্ত থাকতে হয় ১২ দিন। ‘‘বাকি দিনগুলো অনায়াসে ধারাবাহিকের কাজ করতে পারব’’, দাবি অভিনেত্রীর। অর্থাৎ, দুই পর্দাতেই সমান ভাবে কাজ করতে চান তিনি। ইতিমধ্যেই চুল কেটে ফেলেছেন অপরাজিতা। এক ঢাল চুল উঠে এসেছে ঘাড়ের কাছে। অভিনেত্রীর বক্তব্য, যে যে ছবির যেটুকু কাজ বাকি তা এই চুলেই সামলে নিতে পারবেন তিনি। তবে প্রেমেন্দুবিকাশ চাকীর আগামী ছবিতে তাঁর চরিত্রের সঙ্গে চুলের এই বিশেষ ভঙ্গি অনায়াসে মানিয়ে যাবে।

Advertisement

নাম ঠিক না হওয়া আগামী ছবিতে অপরাজিতার চরিত্রটি যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। ছবিতে তিনি এক মা। খুব কষ্ট করে মেয়েকে মানুষ করেছেন। তাঁর জীবনে একটি অঘটন আছে। স্বামী কোনও একটি কারণে তাঁর সঙ্গে থাকেন না। তার পরেও তিনি দমেনি। চলনে বলনে ঝকঝকে এই নারী সব কাজ একা হাতে সামলাতে পারেন। বিয়ের আগে এই নারীর জীবনে তাঁর থেকে বয়সে অনেক বড় এক পুরুষ এসেছিলেন। বাবা জোর করে বিয়ে দিয়ে দেওয়ায় সেই ভালবাসা পরিণতি পায়নি। এ বার মেয়ে মায়ের হারানো প্রেমিককে ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগী হবে। সত্যিই কি এই অসাধ্যসাধন হবে? এই নিয়ে গল্প।

মৈনাক ভৌমিকের ‘চিনি’র পর আগামী ছবিতেও এক মেয়ের ‘একা মা’... কথা ফুরোনোর আগেই অপরাজিতার মন্তব্য, ‘‘আমি শুরু থেকেই কারওর না কারওর মা। মাত্র ২৩ বছরে যখন ‘এক আকাশের নীচে’ ধারাবাহিক করি, তখনই মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেছি। তবে সেখানেও বাছবিচার আছে। টিপিক্যাল মায়ের চরিত্র দিলেই কিন্তু আমি রাজি হব না। যে চরিত্র কোনও বার্তা দেবে, সেই ধরনের পারিবারিক, সামাজিক বা রাজনৈতিক চরিত্রে দর্শক আমায় দেখতে পাবেন।’’

আরও পড়ুন

Advertisement