Advertisement
২৪ জুলাই ২০২৪
Roopa Ganguly

সিরিয়ালের গল্প নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন রূপা, এ প্রসঙ্গে কী জবাব দিলেন ‘মেয়েবেলা’র লেখিকা?

বেশ কিছু দিন হল চর্চায় বাংলা সিরিয়াল ‘মেয়েবেলা’। সিরিয়ালে মুখ্য চরিত্রে দেখা গিয়েছিল রূপা গঙ্গোপাধ্যায়কে। তাঁর আচমকা সিরিয়াল থেকে সরে আসা নিয়ে শুরু হয়েছে বিস্তর বিতর্ক।

Meyebela Serial controversy

রূপা গঙ্গোপাধ্যায় সরে আসার পর কেমন ভাবে চলছে ‘মেয়েবেলা’ সিরিয়ালের শুটিং? —ফাইল চিত্র।

উৎসা হাজরা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১২ মে ২০২৩ ১০:২৮
Share: Save:

“ধারাবাহিকে যে যে অসভ্যতা দেখানো হচ্ছিল, তা আমি আর মানতে পারছিলাম না,” সিরিয়াল ছাড়ার পর এমনটাই মন্তব্য করেন অভিনেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। শেষ তিন মাসে তিনি অবশ্য ‘বীথিমাসি’ হিসাবে যথেষ্ট জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিলেন দর্শক মহলে। দীর্ঘ আট বছর পরে রূপার টেলিভিশনে ফেরা নিয়ে দর্শক মহলে উত্তেজনা কম ছিল না। তিন মাসের মধ্যে এই বদল ঘটতে অনেকেই অবাক। বীথিকা মিত্রের চরিত্রে রূপার পরিবর্তে বর্তমানে দর্শক দেখছেন অনুশ্রী দাসকে। এই পরিবর্তিত এবং বিতর্কিত পরিস্থিতিতে কী ভাবে চলছে ‘মেয়েবেলা’ সিরিয়ালের শুটিং। সেটে হাজির আনন্দবাজার অনলাইন।

এই পরিবর্তন ‘মেয়েবেলা’ সিরিয়ালের লেখিকার কাছেও সমান ভাবে আকস্মিক। তাঁর মতে, এই সিরিয়ালের গল্প ভীষণই বাস্তবধর্মী। বাস্তবের সঙ্গে খুবই মিল খুঁজে পাবেন দর্শক। রূপার অভিযোগ ছিল, এই যুগে দাঁড়িয়েও এমন পুরনো ভাবনাচিন্তার গল্প কী করে কেউ লিখতে পারে? কী ভাবেই বা দেখাতে পারে? এ প্রসঙ্গে ‘মেয়েবেলার’ লেখিকা দেবিকা মুখোপাধ্যায় কী বলছেন? আনন্দবাজার অনলাইনকে দেবিকা বলেন, “রূপাদি কী বলেছেন আমি তা নিয়ে কিছু বলতে পারব না। তবে গল্প প্রথম দিন থেকে যা ছিল তাই রয়েছে। প্রতি দিন দর্শককে ফিরিয়ে আনা এতটাও সহজ নয়। প্রায় ৪০০ থেকে ৫০০ পর্ব ধরে দর্শককে টেনে রাখতেও মুনশিয়ানা লাগে। মেয়েবেলা গল্পটা বাস্তবধর্মী চাইলেই কিছু আজগুবি করে দিতে পারি না। দিনের শেষে কে কী ভাবে ব্যাখ্যা করছে সেটা তাঁদের বিষয়।” দেবিকা আরও যোগ করেন, “ভাল-মন্দ যাহাই আসুক সত্যেরে লও সহজে। আমি জানি আমি কী করছি। কে খারাপ বলছে, তেমন ভাবে নাড়া দেয় না। আমি জানি যা করছি, ঠিক করছি।”

সহ-অভিনেত্রীর পরিবর্তন ঘটলে কি সেই কাজে কোনও প্রভাব পড়ে? না কি কোনও পার্থক্য হয় না? কী বললেন সিরিয়ালের ডোডো এবং মৌ? তাঁদের দু’জনের প্রায় একই কথা। তাঁরা বললেন, “আমরা দিনের শেষে পেশাদার অভিনেতা। কাজ করতে গিয়ে কোনও অসুবিধা হচ্ছে না। আর শটের পরের সমীকরণের কথা যদি জানতে চান তা হলে বলব অনুশ্রীদির (বীথি চরিত্রে অভিনয় করছেন অনুশ্রী দাস) সঙ্গে মাত্র তিন দিন হল কাজ করছি। এর মধ্যেই আমাদের অনেকটা আপন করে নিয়েছেন।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE