বছর তিনেক আগে সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজের প্রাক্তনীরা এক স্বপ্ন দেখেছিলেন। ভারতের বাইরে, পারস্য উপসাগরের উপকূলে অবস্থিত দুবাইতে যে সমস্ত বাঙালি রয়েছেন, তাঁদের একসঙ্গে এনে ছোটখাটো এক অনুষ্ঠানের। সেই স্বপ্নটা কখন যেন আকার নেয় এক সুবৃহৎ অনুষ্ঠানের, পাশে এসে দাঁড়ান মানুষজন। পথ চলা শুরু করে বঙ্গপ্রবাসী ‘মিলাপ’।

প্রথম দু’বছর ওই ‘মিলাপ’ এক্কেবারে ‘সুপারহিট’, শুধু দুবাইয়ের বাঙালিই নন, আশপাশের বাঙালিরাও মাটির গন্ধের স্বাদ পেতে ভিড় জমিয়েছিলেন অনুষ্ঠানে।

‘মিলাপ’ একটু বড় হয়েছে, এ বছর তার ‘তিন’। দুবাইয়ে আগামী ৬ এবং ৭ ডিসেম্বর সাড়ম্বরে পালিত হবে বঙ্গপ্রবাসী মিলাপ ২০১৯। দেখানো হবে ‘গুমনামী’, ‘সত্যান্বেষী ব্যোমকেশ’, ‘মিতিন মাসি’ এবং ‘মুখোমুখি’— এই চারটি ফিচার ফিল্ম। যাঁরা বিদেশে বসে বাংলা ছবির স্বাদ নিতে পারেন না, তাঁদের জন্য এ যেন এক সুবর্ণ সুযোগ। আর বাঙালি মানেই তো খাওয়াদাওয়া, হুল্লোড়... তাই সিনেমা দেখানোর পাশাপাশি থাকবে কব্জি ডুবিয়ে ভুরিভোজ, জানালেন অনুষ্ঠানের প্রধান আয়োজক পল্লবী চট্টোপাধ্যায়। 

আরও পড়ুন: দিঘার হোটেলে হাত-বাঁধা তরুণীর ঝুলন্ত দেহ! রহস্যভেদ হল চার বছরের শিশুর হাত ধরে

পল্লবীর ভাষায়, ‘‘বাপ্পিদার সঙ্গে দুবাইতে শো করতে গিয়েছিলাম। সেখানে গিয়ে দেখি অসম্ভব ভাল রেসপন্স, তার পরই এই ‘মিলাপ’-এর প্ল্যানটা।’’

আরও পড়ুন: জঙ্গি নেতার মৃত্যু, ‘প্রতিশোধ’ নিতে গাজা থেকে রকেট বৃষ্টি ইজরায়েলে

সিনেমা ছাড়াও থাকছে অঞ্জন দত্ত, অমিত দত্ত এবং নীল দত্তের লাইভ পারফরম্যান্স। গানের ঝোলা নিয়ে থাকছেন রূপম ইসলামও। বঙ্গপ্রবাসী মিলাপ-এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। ডিসেম্বরের ৬ এবং ৭, বাণিজ্যনগরী দুবাইয়ে গুঞ্জরিত হতে চলেছে অঞ্জন, রূপমের গান, বাংলা ছবির সংলাপ... দূর প্রবাসে বসেও বাঙালি আর এক বার ভেসে যাবে নস্টালজিয়ায়... ফিরে যাবে ফেলে আসা দিনে।