Advertisement
১৪ জুলাই ২০২৪
Akshay Kumar

বাঁচার একমাত্র পথ হৃৎপিণ্ড প্রতিস্থাপন! গুরুগ্রামের তরুণীর পাশে বলিউড তারকা অক্ষয়

বক্স অফিসে তাঁর ছবি মুখ থুবড়ে পড়লেও বিপদে মানুষের পাশে দাঁড়াতে পিছপা হন না অক্ষয় কুমার। চিকিৎসার জন্য দিল্লির তরুণীকে অর্থসাহায্য করলেন তিনি।

গুরুগ্রামের ২৫ বছর বয়সি আয়ুষীর পাশে দাঁড়ালেন অক্ষয় কুমার।।

গুরুগ্রামের ২৫ বছর বয়সি আয়ুষীর পাশে দাঁড়ালেন অক্ষয় কুমার।। — ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই শেষ আপডেট: ১০ জানুয়ারি ২০২৩ ১৩:১৭
Share: Save:

পর পর ছবি ফ্লপ করলেও তিনি নাকি শুধুই সিনেমার সংখ্যা বাড়াতে ব্যস্ত! পারিশ্রমিক ছাড়া কিছুই নাকি তাঁর মাথায় ঢোকে না! নিন্দকরা যা-ই বলুন না কেন, অক্ষয় কুমার যে মাঝেমধ্যেই সমাজসেবার কাজে অংশ নেন, সে কথাও ভুলে গেলে চলবে না। একাধিক বার সাধারণ মানুষ বিপদে পাশে পেয়েছেন তাঁকে। যেমন এ বারে তিনি গুরুগ্রামের ২৫ বছর বয়সি আয়ুষীর পাশে দাঁড়ালেন।

সম্প্রতি, ওই মহিলার হৃৎপিণ্ড প্রতিস্থাপনের প্রয়োজন হয়। বড় অপারেশন। অনেক খরচ। পরিবারের সামর্থ্য ছিল না। বিষয়টি জানতে পেরে এগিয়ে আসেন বলিউডে খিলাড়ি কুমার। রোগীর পরিবারের হাতে তিনি ১৫ লক্ষ টাকা তুলে দিয়েছেন। অক্ষয় এই ধরনের কাজকে সব সময় প্রচারের আড়ালেই রাখতে চান। কিন্তু অভিনেতাকে ধন্যবাদ জানিয়ে মুখ খুলেছেন রোগীর দাদু। তিনি জানিয়েছেন, অক্ষয় তার নাতনির কথা জানতে পারেন পরিচালক চন্দ্রপ্রকাশ দ্বিবেদীর থেকে। অক্ষয়কে নিয়ে ‘সম্রাট পৃথ্বীরাজ’ ছবিটি পরিচালনা করেছিলেন তিনি।

অন্য দিকে, জন্মগত হৃৎপিণ্ডের রোগে আক্রান্ত আয়ুষী। পরিবার সূত্রে খবর, ওঁর হৃৎপিণ্ডের মাত্র ২৫ শতাংশ সচল। আয়ুষীর দাদু বলেন, ‘‘হৃৎপিণ্ড প্রতিস্থাপনই একমাত্র পথ। অক্ষয় কুমারের তরফে সাহায্য পাওয়ার পর এ বার আমরা ডোনারের সন্ধান শুরু করব।’’

অক্ষয় কুমারের হাতে এই বছর একাধিক ছবি রয়েছে। এই মুহূর্তে তিনি ইমরান হাশমির সঙ্গে ‘সেলফি’ ছবির শুটিংয়ে ব্যস্ত। এ ছাড়াও অভিনেতার হাতে রয়েছে যশবন্ত সিংহ গিলের বায়োপিক এবং টাইগার শ্রফের সঙ্গে ‘বড়ে মিয়াঁ ছোটে মিয়াঁ’।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Akshay Kumar Bolywood Actor Bollywood
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE