• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বাবা-মায়ের আদুরে

লকডাউনে মা-বাবাকে মিস করছেন সেলেব সন্তানরা। তাই কেউ লিখছেন নোট, কেউ বা আবার চিঠি

Bhumi-Ayushmann-Sonam
ভূমি-আয়ুষ্মান-সোনম

মাসদুয়েক হতে চলল, কার্যত গোটা ইন্ডাস্ট্রি স্তব্ধ। অভিনেতারা বাড়িতেই বেশির ভাগ সময় কাটাচ্ছেন। অনেকেই মা-বাবার কাছ থেকে দূরে রয়েছেন, কেউ সম্পূর্ণ অন্য শহরে। এই সময়ে মা-বাবার কথা স্বভাবতই বেশি করে মনে পড়ছে। আর তাই বলিউডের কোয়রান্টিন জুড়ে মা-বাবার জন্য চিঠি আর নোটস।

সম্প্রতি বাবার জন্মদিনে তাঁর উদ্দেশে চিঠি লিখেছেন ভূমি পেডনেকর। সঙ্গে বাবা ও নিজের কিছু ছবিও শেয়ার করেছেন অভিনেত্রী। সেখানে বাবার সঙ্গে কাটানো প্রত্যেকটা মুহূর্ত থেকে শুরু করে নিজেদের মধ্যে বাবার উপস্থিতি কতটা টের পান, তা সবই লিখেছেন তিনি। ভূমি ও তাঁর বোন হাসলেই যে তাঁদের বাবার মতো দেখতে লাগে, তাঁরা কিছু দুষ্টুমি করলেই ‘একদম বাবার মতো’ বলে যে তাঁদের মা হাসেন, আবার ভাল কাজ করলেও একই কমপ্লিমেন্ট জোটে, সে সবই উঠে এসেছে সেই আবেগপূর্ণ নোটে। প্রত্যেক পরীক্ষার রাতে ভূমির পাশে বাবার জেগে থাকা, স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে একসঙ্গে ম্যাডোনার গান শোনা, মাস্‌ল পেনের সময়ে গরম জলের ব্যাগ এগিয়ে দেওয়া... সেই সব স্মৃতি হাতড়েছেন অভিনেত্রী তাঁর লেখায়। ভূমির বাবা মারা গিয়েছেন অনেক দিন। কিন্তু এখনও ভূমি মনে করেন যে বাবা তাঁদের সঙ্গেই রয়েছেন।

ওই দিনই আবার জন্মদিন ছিল আয়ুষ্মান খুরানার বাবার। আয়ুষ্মান তাঁর বাবার সঙ্গে একটি সাদা-কালো ছবি পোস্ট করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেখানেই বাবাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে অভিনেতা লিখেছেন, ‘‘হ্যাপি বার্থডে টু দ্য বেস্ট ফাদার ইন দ্য ওয়র্ল্ড! তুমিই আমার চিন্তাকে উড়ান আর আমায় ট্যালেন্ট দিয়েছ। আমি কাউকে তোমার বয়স বলব না। কারণ কেউ তা বিশ্বাস করবে না।’’ তাঁর পোস্টে ভূমিও কমেন্ট করেন সেই দিন। মৌনী রায়-সহ অনেক বলি-তারকাই সে দিন কমেন্ট করেছিলেন আয়ুষ্মানের সেই পোস্টে। 

এর আগে অনুষ্কা শর্মার জন্মদিনেও বাবার কথা নিজের পোস্টে উল্লেখ করেন অভিনেত্রী। প্রত্যেক দিন স্কুল যাতায়াতের পথে নানা বিষয় নিয়ে বাবার সঙ্গে আলোচনা হত অনুষ্কার। বাবা-ই তাঁর সবচেয়ে বড় শিক্ষক। যে কোনও পরিস্থিতিতে ঠিক সিদ্ধান্ত নিতে শিখিয়েছেন তাঁর বাবা। আর তার ফলও তিনি হাতেনাতে পেয়েছেন। 

অন্য দিকে এই লকডাউনের মধ্যেই পড়েছে সোনম কপূরের মায়ের জন্মদিন ও মা-বাবার বিবাহবার্ষিকী। এই বিশেষ দিনগুলিতে মা-বাবার কাছে থাকতে না পারার দুঃখপ্রকাশ করেছেন সোনম। মা-বাবার ছবি পোস্ট করে তাঁদের ১১ বছরের ডেটিংয়ের পরে ৩৬ বছরের বিবাহিত জীবনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অভিনেত্রী। একই সঙ্গে লিখেছেন, ‘‘তোমাদের ভীষণ জড়িয়ে ধরতে ইচ্ছে করছে।’’ শুধু নিজের মা-বাবার কথাই নয়, বরং মাদার্স ডে-তে শাশুড়ির কথাও লিখেছিলেন সোনম।

এর আগে লকডাউন শুরুর মুখে মুখেই মহেশ ভট্টকে জড়িয়ে ধরে ছবি দিয়েছিলেন আলিয়া ভট্টও। সেখানেও আলিয়ার কলমে উঠে এসেছিল বাবাকে মিস করার কথা। বাড়ি থেকে দূরে আছেন দীপিকাও। প্রায়ই তাঁকে দেখা যাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায় মা-বাবা-বোনের সঙ্গে থ্রোব্যাক ছবি পোস্ট করতে।

আরও পড়ুন: ট্রেলারে চেনা নোলানের ঝলক

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন