বলিউডের বদলে যাওয়া ধারায় রিয়্যালিস্টিক ছবির দর্শক দিনে দিনে বাড়ছে। সেই কথা মাথায় রেখে প্রথম হিন্দি ছবিতে আধার কার্ডের মতো সংবেদনশীল বিষয় বেছে নিয়েছেন জাতীয় পুরস্কার বিজয়ী পরিচালক সুমন ঘোষ। ছবির নাম ‘আধার’। মুখ্য চরিত্রে বিনীত কুমার সিংহ। বুসান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ছবির প্রিমিয়ার হবে।

সুমন বলছিলেন, ‘‘আমেরিকার একটি পত্রিকায় আধার সংক্রান্ত আর্টিকল পড়েছিলাম। সেটা ২০১০ সালে, যখন আধার কার্ড নিয়ে ভারতে কর্মযজ্ঞ শুরু হয়েছে। তাতে লেখা হয়েছিল, আধারের জন্য ভারতের প্রত্যন্ত গ্রামের এক কৃষকের আঙুলের ছাপ পাওয়া যাচ্ছে না। কারণ চাষের কাজ করতে করতে তাঁর আঙুলের ছাপ ক্ষয়ে গিয়েছে। যে দেশে আশি শতাংশ কৃষক, সেখানে এমন ঘটনা আমাকে ভাবতে বাধ্য করে। সেই কৃষক থেকে শুরু করে অমিতাভ বচ্চনের মতো সুপারস্টারকে আধারের পরিচয়পত্রে বেঁধে ফেলার যে পরিকল্পনা, তা যেন এক অর্থে জাতীয়তাবোধ সেলিব্রেট করা। এই ভাবনা থেকেই ছবিটি।’’

বিনীতকে কেন চরিত্রটির জন্য ভাবলেন? ‘‘গত বছর জানুয়ারি মাসে ‘মুক্কাবাজ়’ মুক্তি পায়। ওই ছবিটি দেখেই বিনীতকে আমরা বেছে নিই। এক, দারুণ অভিনেতা। দুই, হিন্দিভাষী কাউকে চাইছিলাম।’’ বিনীতের চরিত্রটি ঝাড়খণ্ডের এক বাসিন্দার, যে তার গ্রামে প্রথম আধার কার্ডের জন্য নাম লেখায়। সরকারি আধিকারিকের ভূমিকায় সৌরভ শুক্ল। আছেন রঘুবীর যাদব, সঞ্জয় মিশ্র ও নবাগতা পৃথ্বী হট্টে।

বাংলার বাইরে কাজ করার অভিজ্ঞতা কেমন? ‘‘খুব ভাল। সেটে আমি বাঙালি। ডিওপি রবি কিরণ আইয়াগিরি তেলুগু। বিনীত উত্তরপ্রদেশের, ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোরের দায়িত্বে থাকা অস্কারজয়ী সুরকার রসুল পুকুট্টি কেরলের, শান্তনুদা (মৈত্র) বাঙালি হলেও দিল্লির বাসিন্দা। গোটা দেশই যেন সেটে হাজির ছিল। প্রথম বার নিজেকে ভারতীয় মনে হল।’’ 

সুমনের আগামী ছবির পরিকল্পনাও সারা। ‘আধার’-এর প্রযোজনা সংস্থার ব্যানারেই তাঁর দ্বিতীয় হিন্দি ছবির নাম ‘জুলিয়েট’। এটি একটি লাভ স্টোরি। মেঘনা গুলজ়ারের প্রাক্তন সহকারী পরিচালক কনিষ্কা সিংহ দেও ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন। তবে কাস্টিং চূড়ান্ত হয়নি। বাংলাতেও একটি ছবির পরিকল্পনা রয়েছে সুমনের।