• স্রবন্তী বন্দ্যোপাধ্যায়
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

প্রেম, সম্পর্ক সব আছে! কিন্তু বিয়ে...: তনুশ্রী

Tanusree Chakraborty
জীবনে প্রথম ওয়েব সিরিজে তনুশ্রী, সঙ্গে সাহেব।

Advertisement

দশ বছর কাটিয়ে দিলেন ইন্ডাস্ট্রিতে। চেহারাটা তো দেখছি এক রেখেছেন। রুটিনটা কী?

আমি একটু নিয়মের মধ্যে থাকি। অরগ্যানিক শাকসব্জি। অরগ্যানিক স্কিন প্রডাক্ট ব্যবহার করি। আর এক্সারসাইজ। তবে মন ভাল রাখাটাও জরুরি।

কী করে মন ভাল রাখেন?

অভ্যেস করতে হয়।

আপনাদের জগতে এত প্রতিযোগিতা! রোজ নতুন মুখ!

দেখুন প্রতিযোগিতা সব জায়গাতেই আছে। আর নতুন মুখ? এখনই একজন পরিচালককে বলতে শুনছিলাম, উনি বছর কুড়ির ফ্রেশ মুখ পাচ্ছেন না। আসলে এ ভাবে কিছু বলা যায় না। সময়ের একটা ব্যাপার আছে।

কেবল ছবি পোস্ট করে যাওয়া অভিনেত্রীর কাজ বলে আমি মানি না: তনুশ্রী 

আপনি কি সব কিছু সময়ের উপর ছেড়ে দেন?

নাহ্, আমার কাজের ক্ষেত্রে আমি খুব ফোকাসড। একেবারেই সময়ের উপর ছাড়িনি বিষয়টা।

কিন্তু ‘মহানায়ক’ ধারাবাহিক থেকে ‘গুমনামী’,এই পথে আপনি যে প্রচুর ভাল পরিচালক, বড় ব্যানারের সঙ্গে কাজ করছেন এমনটাও নয়!

দেখুন, ‘গুমনামী’-র কথা আপনিই বললেন। তবে যে কোনও চরিত্রে কাজ করব না ঠিক করেছি। বেছে বেছেই কাজ করছি। আর শুধু আমি নয়, টলিউডের সব অভিনেত্রীই এ ভাবে কাজ করছেন। শুনুন, অনেকে হয়তো ভাবে কাজ করতে করতে কত টাকা ব্যাঙ্ক ব্যালান্স হল। কেউ হতেই পারে তাতে খুশি। আর একটা শট নেওয়ার পর পরিচালক যখন খুশি হয়ে যান, ক্ল্যাপ দেন, আমি তাতে সবচেয়ে আনন্দ পাই।তাই সব সময় যে একটানা প্রচুর কাজ করে যেতে হবে এমনটা নয়। আর একটু বলি?

আরও পড়ুন-‘অশালীন আচরণ থেকে প্রতারণা’, অভিযোগের উত্তরে কী বললেন অরিন্দম?

হ্যাঁ বলুন না...

‘ফ্ল্যাট নং 609’ দেখার পর প্রিমিয়ারেই এক দর্শক এসে আমায় বলেছিলেন, আপনি এত কম ছবি করেন কেন? আমি এটাই চাই। মানুষ অপেক্ষা করুক।এই অপেক্ষা আমাকে করতে শিখিয়েছেন আমার পরিচালকেরা।

কারা আপনার পরিচালক?

যাঁদের কাছে কাজ শিখেছি। কমলেশ্বরদা, অরিন্দমদা, কৌশিকদা, টনিদা, বিরসা, সৃজিত।

সৃজিতের সঙ্গে ঝগড়া হয়েছিল না?

ওর সঙ্গে বহুদিন ধরে কাজের কথা হচ্ছিল। ‘এক যে ছিল রাজা’ করার সময় ঝগড়া হয়েছিল। তখন মনে হয়েছিল আর একটু অপেক্ষা করি। সেই অপেক্ষা মিটল ‘গুমনামী’-তে। দেখুন খুব মহিলাভিত্তিক ছবি যে টলিউডে হচ্ছে তা নয়। অপেক্ষাটা গুরুত্বপূর্ণ।

আপনার বিয়ের জন্য তো দর্শক অপেক্ষা করে আছে।

না, এখন বিয়ে করব না।

আমার জীবনে প্রথম ওয়েব সিরিজ। আর গল্পটা একদম আলাদা: তনুশ্রী 

প্রযোজকের সঙ্গে সেই গভীর প্রেমটা আছে নিশ্চয়?

হ্যাঁ। প্রেম, সম্পর্ক সব আছে। তবে এখন বিয়ে করব না।

টলিউডে তো বিয়ের মরসুম!

মরসুম বলেই তো করব না। সকলের বিয়ে হয়ে যাক মরসুমে, তারপর ভাবব

ইনস্টাগ্রামে হট ছবি দিয়ে ফলোয়ার বাড়ানোর কথা ভাবেন?

কেবল ছবি পোস্ট করে যাওয়া অভিনেত্রীর কাজ বলে আমি মানি না। তার চেয়ে নেটফ্লিক্স দেখি। বিশ্বের ছবি দেখি। এগুলো দেখলে বোঝা যাবে কতটা কাজ বাকি আমাদের। আমরা দারুণ কাজ করছি শুধু এটা ভাবলেই চলবে? আর শাড়ি বা বিকিনি, যে ছবিই পোস্ট করা হোক আমার মনে হয় তার পেছনে গল্প থাকা উচিত। আজকের সময়ে এমনিতেও বিকিনি পরাটা খুব বড় বিষয় নয়। যারা পরে তারা খুব স্বাভাবিক ভাবেই পরে। আর ছেলেরাও তো একটা জাস্ট শর্টস পরে ছবি দিচ্ছে, তো মেয়েরা কেন দেবে না? কিন্তু যারা দেখে এই ছবি তারা সেটা স্বাভাবিক ভাবে আজও নিতে পারে না।

‘বন্য প্রেমের গল্প’ আপনার প্রথম ওয়েব সিরিজ। কতটা বন্য আপনি?

আমার জীবনে প্রথম ওয়েব সিরিজ। আর গল্পটা একদম আলাদা। এখানে আমি এমন এক চরিত্রে অভিনয় করছি ক্রাইমের উৎস খোঁজাই তার প্যাশন। সে যে তিন জন কয়েদিকে নিয়ে কাজ করছে তারা হঠাৎ পালিয়ে যায়।

সিরিজের ট্রেলর ইঙ্গিত দিচ্ছে এখানে যৌনতা বার বার আসছে।

যৌনতা আসছে কারণ প্রেম থেকে ক্রাইমের জন্ম হচ্ছে।

আপনার সে রকম কোনও দৃশ্য আছে?

না, নেই। তবে আমি তো সেই কবেই সেক্স কমেডি করেছি, ‘অভিশপ্ত নাইটি’। এই সিরিজের বিষয় ভাবনা একেবারেই আলাদা। সাহেব আছে আমার সঙ্গে। খুব ভাল কাজ করেছে।

আরও পড়ুন-নেহা-আদিত্যর বিয়ে কি গুজব না সত্যি? মুখ খুললেন উদিত নারায়ণ

নতুন বছরে আর কী আসছে?

‘অন্তর্ধান’ রিলিজ হবে। আমার প্রথম কমার্শিয়াল রিলিজ আসছে সোহমের সঙ্গে ‘হারানো প্রাপ্তি’। আরও তিনটে ছবির কাজ হবে।

আপনি একই ছবিতে কমবয়সী, আর বেশি বয়সীর চরিত্র করছেন নাকি?

এই রে! হ্যাঁ...আর কিছু বলা যাবে না। গন্ডগোল হয়ে যাবে!

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন