Advertisement
২০ জুলাই ২০২৪
Amader ei path jodi na shesh hoy

TV Serial: ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’-তে গুণ্ডার হাত থেকে বাঁচাতে মন্দিরে ঊর্মিকে সিঁদুরদান সাত্যকির!

এ বার সাত্যকি-ঊর্মির জীবনে ‘দেশের মাটি’ ধারাবাহিকের ছোঁয়া?

‘আমাদের এই পথ যদি না শেষ হয়’ ধারাবাহিক

‘আমাদের এই পথ যদি না শেষ হয়’ ধারাবাহিক

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২১ জুন ২০২১ ১৫:৫৩
Share: Save:

মাঝে সপ্তাহ দু’য়েকের বিরতি। তার মধ্যেই ঊর্মিকে বিয়ে করে নিল সাত্যকি! গোটাটাই ঘটছে ঊর্মির বুদ্ধিতে। তাকে গুন্ডার হাত থেকে বাঁচাতে ঘটবে গোটা ঘটনা। এই বিয়ে নিয়ে যথারীতি সাত্যকি-ঊর্মির পরিবারে ঝামেলা শুরু। সোমবার সকালে নেটমাধ্যমে সামনে এসেছে জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘আমাদের এই পথ যদি না শেষ হয়’ ধারাবাহিকের প্রোমো। সেই প্রচার-ঝলক বলছে, টানা ২ সপ্তাহ ছোট পর্দা থেকে দূরে থাকার পরেই জোরদার মোচড় নিয়ে ফিরছে মুখ্য চরিত্র সাত্যকি-ঊর্মি তথা ঋত্বিক মুখোপাধ্যায়-অন্বেষা হাজরা। এদের গল্প এগিয়েছে একটি হলুদ ট্যাক্সিকে কেন্দ্র করে।

বিরতির পরেই সিঁদুরদান! ব্যাপারটা কী? আনন্দবাজার অনলাইনকে ‘ঊর্মি’ ওরফে অন্বেষার সাফ জবাব, ‘‘ঊর্মি ভীষণ ফিল্মি। সিনেমার পোকা। ছোট থেকে জীবনটাকে সিনেমা মনে করে। তাই গুন্ডারা তাড়া করতেই নিজেকে বাঁচাতে সাত্যকির হাত থেকে সিঁদুর পরে নিল।’’ স্টার জলসার ‘খড়কুটো’ ধারাবাহিকের পর এ বার সাত্যকি-ঊর্মির জীবনে ‘দেশের মাটি’ ধারাবাহিকের ছোঁয়া? ওই ধারাবাহিকেও শিবু গুন্ডার হাত থেকে বাঁচাতে মন্দিরে সিঁদুরদান সেরেছিল অন্যতম জুটি কিয়ান-নোয়া। অন্বেষার যুক্তি, কিয়ান-নোয়া এই সিঁদুরদানকে বিশ্বাস করত। সেই জায়গা থেকে এই কাজ করেছিল। ঊর্মি এত তলিয়ে ভাবে না। সে শুধ নিজেকে বাঁচাতেই এই পদক্ষেপ করেছে। আদতে বিষয়টিকে এত গুরুত্বপূর্ণ বলে মানতেই রাজি নয় সে।

কী বলছেন বাস্তবের ঊর্মি অর্থাৎ অন্বেষা? বিশেষ দৃশ্যের পরে তাঁর কী অনুভূতি? এ বারেও স্পষ্ট উত্তর অভিনেত্রীর, ‘‘ঝামেলা বাড়ল। রোজ বাড়ি ফিরে শ্যাম্পু করে সিঁদুর তুলতে হবে!’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE