Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২০ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

‘আপনার খুব অহংকার’, নেটমাধ্যমে সমালোচনার শিকার ‘নিরুপমা’ খ্যাত অর্কজা

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৪ মে ২০২১ ২১:৪৯
সমালোচনার মুখে অভিনেত্রী অর্কজা আচার্য।

সমালোচনার মুখে অভিনেত্রী অর্কজা আচার্য।

‘খ্যাতির জন্য মানুষের সঙ্গে ভাল ব্যবহার করতে জানতে হয়। আপনার প্রচুর অহংকার’! সমালোচনার মুখে অভিনেত্রী অর্কজা আচার্য। কী এমন করলেন তিনি, যাতে অনুরাগীদের বিরাগভাজন হলেন?

টেলিভিশনে সুযোগ পাওয়ার পরেই দীর্ঘ ৬ মাসের বনবাস। বাইরের জগতের সঙ্গে যোগাযোগ বিছিন্ন হয়ে যায় তাঁর। না ছিল ফেসবুক অ্যাকাউন্ট, না ছিল ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট। আর টুইটারে তিনি কোনও দিন প্রোফাইল খোলেননি। আচমকা সমস্ত নেট দুনিয়া থেকে বিদায় নিতে হয় তাঁকে। ‘ওগো নিরুপমা’ ধারাবাহিকে ‘নিরুপমা’র চরিত্রে অভিনয় করার জন্য আড়ালে দিন যাপন করতে হবে। এমনই চুক্তি হয়েছিল অর্কজা এবং চ্যানেল কর্তৃপক্ষের।

‘নিরুপমা’ থেকে ‘সংযুক্তা’ হলেন। প্রকৃত চেহারা প্রকাশ পেল। আচমকাই অনুরাগীদের মাঝে পড়লেন তিনি। এক লাফে খ্যাতি। সাধারণ মুখ থেকে পরিচিত মুখে পরিণত হওয়ার সেই ধাপগুলি পার হতে পারেননি অর্কজা। আর তাই অনুরাগীদের অভিমানের দায় তাঁর ঘাড়ে?

কী বলা হয়ে‌ছে তাঁকে?

সম্প্রতি তাঁর একটি ছবিতে এক নেটাগরিকের মন্তব্য, ‘আপনার খুব অহংকার। তাই যত ভাল অভিনয়ই করুন না কেন, কেউ আপনাকে সে রকম ভাবে পছন্দ করে না’। অর্কজাকে তাঁর পরামর্শ, বিখ্যাত হতে গেলে মানুষের সঙ্গে ভাল ব্যবহার করতে জানতে হয়। কিন্তু নেটাগরিকের অভিযোগ, অর্কজা কাউকে পাত্তা দেন না। শেষে তিনি লিখলেন, ‘মন্তব্যটি ভাল না লাগলে আশা করব আপনি নিজের ব্যবহার বদলাবেন’। এড়িয়ে যাননি অভিনেত্রী। সবার সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে পারেননি বলে ক্ষমা চেয়েছেন সেই পোস্টেই।

Advertisement

কী ভাবে সামলাচ্ছেন তিনি? আনন্দবাজার ডিজিটালকে জানালেন তাঁর প্রতিক্রিয়া।

অর্কজা বললেন, ‘‘কাজের ব্যস্ততা এতটাই যে সর্ব ক্ষণ অনুরাগীদের কাছাকাছি পৌঁছনো যায় না। সেই কারণেই হয়তো অনুরাগীদের মনে অভিমান তৈরি হচ্ছে। তাঁর জন্য আমি অত্যন্ত দুঃখিত।’’ কেবল তিনি নন, সবাইকেই একই অভিমানের মুখোমুখি হতে হয়। অনেকের ছবির তলায় এই ধরনের মন্তব্য দেখতে পাওয়া যায়। অর্কজার কথায়, ‘‘বাংলাদেশের অনুরাগীদের সঙ্গে আমি কী ভাবে যোগাযোগ করব? নেটমাধ্যম ছাড়া এখন সম্ভব নয়। মার্ক জুকারবার্গ এমন যুগান্তকারী আবিষ্কার করেছেন যে মুঠোফোন ছাড়া জগত বিচ্ছিন্ন মনে হয়। দুনিয়া এখন হাতের মুঠোয়।’’ তাঁর মতে, এক জন শিল্পীর কাছে নেটমাধ্যম খুব জরুরি বিষয়। নয়তো অনুরাগী এবং দর্শকদের মনোভাব জানা যেত না। ধারাবাহিক হোক বা ছবি, খ্যাতির রেখাচিত্র অনেকটাই স্পষ্ট হয়ে যায় নেটমাধ্যমে। অর্কজাও অনুরাগীদের থেকে দূরে থাকতে চান না। কেবল খানিক সময় চান। তাঁর কাছে সবটাই নতুন। সমস্ত দর্শকদের সঙ্গে কথা বলতে চান তিনি। তাঁর অনুরোধ, ‘‘দর্শকরা যেন আমায় ভুল না বোঝেন। আমার অহংকার নেই বা আমি পাত্তা দিই না, এমন নয়। কেবল সময়ের অভাব, এই যা।’’

খ্যাতির প্রসঙ্গে তাঁর বক্তব্য, ‘‘আমি কোনও দিন ভাবতে পারিনি যে আমার ছবির তলায় এত মানুষ কথা বলবেন, আমাকে ভালবাসবেন, আমি এতে আপ্লুত।’’

আরও পড়ুন

Advertisement