Advertisement
০৪ অক্টোবর ২০২২
Rani Mukherji

কর্ণ জোহরের মতো হলে আদিত্যকে ভালবাসতাম না: রানি

রানির মতো আদিত্যও নিজেকে বরাবর প্রচারের আলো থেকে দূরে রেখেছেন।

আদিত্য চোপড়া এবং রানি মুখোপাধ্যায়

আদিত্য চোপড়া এবং রানি মুখোপাধ্যায়

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২১ মার্চ ২০২১ ১৩:৩৬
Share: Save:

রানি মুখোপাধ্যায়কে দেখা যাবে ‘মিসেস চ্যাটার্জি ভার্সাস নরওয়ে’ ছবিতে। অভিনেত্রীর জন্মদিন আরও একটু বিশেষ হয়ে উঠল এই ঘোষণার সঙ্গে। রবিবার ৪৩-এ পা দিলেন অভিনেত্রী। কাজের বাইরে নিজের সম্পর্কে তিনি যতটুকু জানতে দিয়েছেন, মানুষ ততটুকুই জেনেছেন। ব্যক্তিজীবন এবং পেশাগত জীবনকে আগাগোড়াই আলাদা রেখেছেন তিনি। স্বামী আদিত্য চোপড়াকে নিয়েও প্রকাশ্যে সে ভাবে কথা বলেননি কখনও। তবে কেন তাঁকে ভালবেসেছিলেন, সে উত্তর দিয়েছিলেন রানি। ফিরে দেখা যাক, কী বলেছিলেন অভিনেত্রী।

রানির মতো আদিত্যও নিজেকে বরাবর প্রচারের আলো থেকে দূরে রেখেছেন। কিছুদিন আগে সংবাদমাধ্যমে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রানি জানিয়েছিলেন, নিজের সঙ্গে আদিত্যর এই মিল খুঁজে পেয়েই তাঁকে ভাল লেগেছিল তাঁর। ইন্ডাস্ট্রিতে অনেকগুলি বছর কাটিয়ে ফেলেছেন অভিনেত্রী। তিনি মনে করেন, সেখানে সকলের বিষয়ে প্রায় সব কিছু জানার পরে তাঁদের শ্রদ্ধা করা কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। তবে আদিত্যকে শ্রদ্ধা করতে পেরেছিলেন, কারণ তিনি স্রোতে গা ভাসিয়ে কখনও চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে আসার চেষ্টা করেননি।

সেই সাক্ষাৎকারে স্বামীকে নিয়ে কথা বলতে গিয়ে রানি টেনে এনেছিলেন কর্ণ জোহরের তুলনা। সব সময় শিরোনামে থাকা পরিচালক-বন্ধুর প্রসঙ্গ তুলে রানি বলেছিলেন, “আদিত্য যদি কর্ণের মতো হত, আমি ওকে ভালবাসতাম না। কর্ণ সব পার্টিতে থাকে। রোজই কিছু না কিছু করছে। কিন্তু আমি আমার পরিবারকে একসঙ্গে দেখতে চাই। আমি পরিবারকে নিয়ে থাকতে ভালবাসি।” কথায় বলে, দুই বিপরীত একে অপরকে আকর্ষণ করে। তবে রানি এবং আদিত্যর ক্ষেত্রে, তাঁদের স্বভাবে মিলই আরও কাছাকাছি এনে দিয়েছিল দু’জনকে।

২০১৪ সালে আদিত্যর সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন রানি। ২০১৫ সালে মেয়ে আদিরার জন্ম হয়। বিয়ের পর ‘মর্দানি ২’, ‘হিচকি’র মতো সফল ছবিতে অভিনয় করেন রানি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.