×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

‘প্রতিবাদ কাজে এল’, ‘ফেয়ার’ সরে ‘লাভলি’ হতেই উচ্ছ্বসিত রিচা চাড্ডা

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ২৬ জুন ২০২০ ১৭:৫৫
রিচা চাড্ডা

রিচা চাড্ডা

দারুণ খুশি রিচা চাড্ডা। দীর্ঘদিন ধরে বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। অবশেষে যেন তার হাতেগরম ফল পেলেন। তাদের ফেয়ারনেস ক্রিম থেকে ‘ফেয়ার’ শব্দ সরিয়ে দিতে চলেছেহিন্দুস্থান ইউনিলিভার।

খবরটি প্রকাশিত হতেই সেলেব দুনিয়া থেকে আম আদমির মুখে চওড়া হাসি। একুশ শতক যেন নব জাগরণের মুখ হয়ে উঠতে চলেছে!

রিচারও কি তাই মত? ইনস্টাগ্রামের লম্বা পোস্টে অভিনেত্রীর দাবি, ‘‘অবশ্যই এটি একটি উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ। সংস্থা তাদের অতি জনপ্রিয় ব্র্যান্ড ‘ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি’র নাম বদলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ২০১৫-য় একটি টি শার্টে দেখেছিলাম লেখা ছিল, ‘NOT FAIR BUT LOVELY’। সেটা সত্যি হলে কে না খুশি হয়?’’

Advertisement

আরও পড়ুন- ফর্সা ত্বকের অভিনেত্রী বিপাশাকে ডাকলেন ‘কালি বিল্লি’ বলে!

রিচাও একসময় ব্র্যান্ডটির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে তাঁর মত, মন থেকে বিশাল বোঝা যেন হাল্কা হয়ে গেল। আসলে, ছোট থেকেই সবাই সাদা-কালোর দ্বন্দ্ব নিয়ে বড় হন। তিনিও হয়েছেন। মেয়েবেলায় মনে হত, ফর্সা হলেই সুন্দর হওয়া যায়। বড় হয়ে বুঝতে শিখেছেন, সৌন্দর্যের সংজ্ঞা আরও অন্য অনেক কিছু। শুধু ফর্সা হওয়া নয়।

সেই সঙ্গে তিনি ধন্যবাদ জানিয়েছেন ওই সংস্থাকেও। বলেছেন, ‘‘ব্র্যান্ডের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছি। বহু যুগ থেকে চলে আসা অতি জনপ্রিয় নাম বদলানোর জন্য মনের জোর এবং ইতিবাচক মন থাকা দরকার। বহু আলোচনার পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়াটাও এক ইতিহাস। আশা, এবার পাশ্চাত্যের প্রভাব ছাড়াই মানসিক দিক থেকে সাবালক হবে ভারত। সৌন্দর্যের সংজ্ঞাও বদলাবে।’’

নামবদল কি বর্ণবিদ্বেষ মোছার পক্ষে যথেষ্ট? এই প্রশ্নের উত্তরও কি রয়েছে মডেল-অভিনেত্রীর কাছে?রিচা আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে জানিয়েছেন, ‘‘এই তো শুরু হল। আগামী দিনে আরও কত কি বদলে যাবে!’’

Advertisement