বয়স দু’বছর। কিন্তু এর মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তারকার তকমা পেয়েছে তৈমুর আলি খানসইফ আলি খান এবং করিনা কপূরের ছেলের প্রায় প্রতিটি পদক্ষেপই ফ্রেমবন্দি করেন পাপারাৎজিরা। এ নিয়ে কপূর এবং খান পরিবারের অন্দরেই মতভেদ রয়েছে। করিনার বাবা রণধীর কপূরের মতে, মিডিয়াই তৈমুরকে সেলিব্রিটি তৈরি করেছে। সইফের মা অর্থাৎ শর্মিলা ঠাকুরও প্রতিদিন খবরে নাতির ছবি দেখতে পছন্দ করেন না। এ বার সেই সুরেই কথা বললেন সইফও।

কিছু দিন আগে বিমানবন্দরে বাবা-মায়ের সঙ্গে তৈমুরের ছবি ফ্রেমবন্দি হয়। সেখানে ফোটোগ্রাফারদের তৈমুরের ছবি তুলতে বারণ করেন সইফ। ক্যামেরার ক্রমাগত ফ্ল্যাশে ছেলে অন্ধ হয়ে যেতে পারে বলেও দাবি করেন বিরক্ত সইফ। সইফের বাড়ির সামনে থেকে ফোটোগ্রাফারদের সরিয়ে দেয় পুলিশ। অনেকেই ভেবেছিলেন, সইফের অভিযোগের ভিত্তিতেই পুলিশ ওই পদক্ষেপ করেছিল। কিন্তু পুলিশে অভিযোগ জানানোর কথা অস্বীকার করেন অভিনেতা।

বরং সইফ অনুরোধ করেছেন। সব ফোটোগ্রাফারদের কাছে তাঁর অনুরোধ, ‘তৈমুরকে সর্বক্ষণ নজরে রাখবেন না। ও কিন্তু কোনও সেলিব্রিটি নয়।’

দেখুন, বিনোদনের নানা কুইজ

সইফের এই অনুরোধকে গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করতে বলছেন বলি মহলের একটা বড় অংশ। সেলেব সন্তানরা ছোট থেকেই হয়তো লাইমলাইটে থাকতে অভ্যস্ত হয়ে যায়। কিন্তু মানুষ হিসেবে সর্বক্ষণ ক্যামেরার ফোকাসে থাকতে তাদের ভাল না-ও লাগতে পারে। সেই না ভাল লাগাকে সম্মান জানানো, স্পেস দেওয়ার পক্ষে সওয়াল শুরু করেছে বলিউড।

আরও পড়ুন, ছেলে আদির অন্নপ্রাশনের ছবি শেয়ার করলেন সুদীপা-অগ্নি

(সিনেমার প্রথম ঝলক থেকে টাটকা ফিল্ম সমালোচনা - রুপোলি পর্দার বাছাই করা বাংলা খবর জানতে পড়ুন আমাদের বিনোদনের সব খবর বিভাগ।)