×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৫ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

বিরাট অনুষ্কার সন্তান এলে তৈমুর মিডিয়ার হাত থেকে কিছুটা নিস্তার পাবে: শর্মিলা ঠাকুর

নিজস্ব সংবাদদাতা
মুম্বই২৩ নভেম্বর ২০২০ ১৪:২৪
 শর্মিলা এবং তৈমুর।

শর্মিলা এবং তৈমুর।

তৈমুর আলি খান যেখানে, পাপারাৎজিদের ক্যামেরাও সেখানে। সইফ-করিনার পুত্র জন্মের পর থেকেই স্টার। সে কোথায় যাচ্ছে, কী করছে, সব কিছুই ফ্রেমবন্দি হয়ে যায় পাপারাৎজিদের ক্যামেরায়। এমন কী তার আদলে তৈরি পুতুল পর্যন্ত বিক্রি হতে দেখা গিয়েছে নানা দোকানে!

তৈমুরের এই জনপ্রিয়তায় কিছুটা চিন্তিত ঠাকুমা শর্মিলা ঠাকুর। ছোট্ট ছেলের প্রত্যেকটা মুহূর্ত শিরোনাম হয়ে উঠুক, এমনটা চান না তিনি। পুত্রবধূ করিনার একটি টক শো ‘হোয়াট উইমেন ওয়ান্ট’-এ তিনি বলেছিলেন, “আগামী দিনে বিরাট এবং অনুষ্কার সন্তান হবে, তৈমুর হয় তো তখন এই পাপারাৎজিদের ক্যামেরা থেকে নিস্তার পাবে।” করিনাও শাশুড়ির কথায় সম্মতি প্রকাশ করে জানিয়েছিলেন, তিনিও এমনটাই আশা করেন।

শুধু তৈমুরই নয়, এর পর কথা হয় আরও অনেক কিছু নিয়ে। করিনা জানতে চান, পরিবার এবং কাজ একসঙ্গে কী ভাবে সামলেছিলেন শর্মিলা। বর্ষীয়ান অভিনেত্রী জানান, পরিবারের জন্য ছবি করা কমিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। ‘খিলোনে’, ‘হাতি মেরে সাথী’, ‘তেরে মেরে স্বপ্নে’-এর মতো ছবিও হাতছাড়া করেন তিনি। পাশাপাশি সেই সময় বলিউডে পুরুষতান্ত্রিকতা নিয়েও কথা বলেন শর্মিলা। তাঁর কথায়, “সেই সময় অমিতাভ বচ্চন এবং শশী কপূর ছাড়া কোনও নায়কই ঠিক সময় সেটে আসতেন না। হয়তো তাঁদের সকাল ১১ টায় আসতে বলা হতো। কিন্তু তাঁরা নিজেদের ইচ্ছে মতো দুপুর ২টোয় এসে পৌঁছতেন।”

Advertisement

সেই সময়কার বলিউড, পরিবার, সম্পর্ক নিয়ে নানা আলোচনায় বুঁদ হয়ে থাকেন দুই প্রজন্মের দুই অভিনেত্রী। তবে বিরাট-অনুষ্কার সন্তানের জন্মের কিছু আগেই পাপারাৎজি এবং স্টারকিডদের নিয়ে করা এই মন্তব্যের ফুটেজ নতুন করে আরও একবার ঘুরপাক খাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

আরও পড়ুন: ভারতে কেন যে এমন সিরিজ হয় না, কুইন-আপ্লুত আনন্দের আক্ষেপ

আরও পড়ুন: বাগদানের পরে ভেঙে যায় সম্পর্ক, ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে কাজ চাইছেন অনুপম খেরের সৎ ছেলে

Advertisement