Advertisement
০২ মার্চ ২০২৪
Teachers Day 2022

কেউ খুব রাগী, আবার কেউ বন্ধুর মতো, রুপোলি পর্দার এই পাঁচ শিক্ষককে এখনও ভোলেননি দর্শক

বলিউডের এই পাঁচটি ছবির পাঁচ শিক্ষক-শিক্ষিকার চরিত্র দাগ কেটেছে দর্শকদের মনে। শিক্ষক দিবসে সেই পাঁচ শিক্ষকের কাহিনিই ঝালিয়ে নেওয়া হল।

কলেজে অধ্যাপিকার চরিত্রে দেখা গিয়েছিল সুস্মিতাকে। শিক্ষকের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন আমির।

কলেজে অধ্যাপিকার চরিত্রে দেখা গিয়েছিল সুস্মিতাকে। শিক্ষকের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন আমির। ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই শেষ আপডেট: ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৩:৫৯
Share: Save:

‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’-এর মিস ব্র্যাগাঞ্জাকে মনে আছে? কলেজের এই অধ্যাপিকাকে দেখে পড়ুয়ারা কখনও ভয়ই পেত না। বরং পড়ুয়াদের সঙ্গে বন্ধুর মতো মিশতে দেখা গিয়েছিল তাকে। আবার, ‘থ্রি ইডিয়টস’-এর ভাইরাসের কথা ভাবুন। বাপ রে! কী তার প্রতাপ। তার ভয়ে তটস্থ হয়ে থাকত পড়ুয়ারা। শিক্ষক দিবসে রুপোলি পর্দার এমন পাঁচ শিক্ষক চরিত্রের কথা তুলে ধরা হল, দর্শকদের হৃদয়ে আজও যাদের জায়গা অমলিন।

১৯৯৮ সালে মুক্তি পেয়েছিল শাহরুখ খান, কাজল ও রানি মুখোপাধ্যায় অভিনীত কর্ণ জোহরের ত্রিকোণ প্রেমের কাহিনি ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’। এই ছবিতে কলেজের অধ্যাপিকা মিস ব্র্যাগাঞ্জার চরিত্রে দেখা গিয়েছিল অভিনেত্রী অর্চনা পুরণ সিংহকে। তাঁর বেশভূষা, কথা বলার কায়দা, খুনসুটি মাতিয়ে রেখেছিল দর্শকদের। এই চরিত্রে অভিনয়ের জন্য এখনও জনপ্রিয় অর্চনা।

মিস ব্র্যাগাঞ্জা যেমন পড়ুয়াদের সঙ্গে বন্ধুর মতো মিশত, ‘থ্রি ইডিয়টস’-এর বীরু সহস্ত্রবুদ্ধে ঠিক তার উল্টো। বদমেজাজের জন্য প্রায়শই পড়ুয়াদের কঠোর সাজা দিত সে। তার ভয়ে তটস্থ থাকত কলেজ পড়ুয়ারা। ব্যঙ্গ করে তাকে ‘ভাইরাস’ বলে ডাকা হত। এই চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন বোমান ইরানি। আমির খানের অন্যতম সফল এই ছবির এই চরিত্র আজও বিপুল জনপ্রিয়।

এই দুই শিক্ষকের তুলনায় ‘ম্যায় হুঁ না’-র চাঁদনি চোপড়া একেবারেই আলাদা। রসায়নের এই কলেজ অধ্যাপিকার ‘গ্ল্যামারে’ বুঁদ হয়ে থাকত পড়ুয়ারা। কলেজে যে দিন প্রথম পা রাখল চাঁদনি, সেই দিনই গান গেয়ে তাকে কার্যত প্রেম নিবেদন করল কলেজের এক পড়ুয়া। সুস্মিতা সেন অভিনীত ওই চরিত্র দর্শক মহলে সাড়া ফেলে দিয়েছিল। বস্তুত, বঙ্গললনার কেরিয়ারে যত সফল ছবি রয়েছে, তার মধ্যে অন্যতম এটি।

স্কুলের চৌহদ্দিতে খুদে পড়ুয়াদের সঙ্গে শিক্ষক কতটা বন্ধুর মতো মিশে মুশকিল আসান করেন, তার একটা নিদর্শন পাওয়া গিয়েছিল ‘তারে জমিন পর’ ছবিটির হাত ধরে। ছবির মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করা খুদে শিল্পী দর্শিল সাফারির জীবনে রং এনে দিয়েছিল আমির খান অভিনীত রামশঙ্কর নিকুম্ভ চরিত্রটি।সমস্ত প্রতিকূলতা পার করে কী ভাবে স্বপ্নের শিক্ষকতার পেশায় যোগ দিল নয়না মাথুর, তারই গল্প বলেছে ‘হিচকি’। শুধু তা-ই নয়, বঞ্চিত পড়ুয়াদের পাশে দাঁড়ানোর লড়াইয়েও যে সেই চরিত্র পিছপা নয়, সে কথাও তুলে ধরেছিল রানি মুখোপাধ্যায় অভিনীত এই চরিত্র। দর্শক মনে রেখেছেন সেই যখন তখন হেঁচকি তোলা আত্মবিশ্বাসী শিক্ষিকাকে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE