• মধুমন্তী পৈত চৌধুরী
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রঙিন পার্টি

কেউ ডান্স ফ্লোরে, কেউ বা ডিনার টেবিলে, পার্টির নানা রং...

Tollywood
ডান্স ফ্লোরে আদৃত, অঙ্কুশ, বনি এবং ওম

সাংবাদিকদের রেকর্ডারের সামনে যে কথা মুখ ফুটে বলেন না সেলেবরা, পার্টির আলো-আঁধারিতে সে কথা অনায়াসে চলে আসে ঠোঁটের গোড়ায়। উল্টেপাল্টে যায় অনেক সমীকরণ। ‘আনন্দলোক’-এর ৪৬তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত পার্টিতে হাজির ছিলেন টলিউডের নামীদামি ব্যক্তিত্বরা।

রাহুল বন্দ্যোপাধ্যায় ও প্রিয়ঙ্কা সরকার বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণার সময়ে পরস্পরের বিরুদ্ধে হাজারো অভিযোগ এনে সংবাদপত্রে সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন। তাঁদের দূরত্বের জন্য অভিযোগের তির উঠেছিল ফোটোগ্রাফার তথাগত ঘোষের দিকে। তবে পার্টির মেজাজে ঘুচে গেল সব ব্যবধান। প্রিয়ঙ্কার ‘ঘনিষ্ঠ’ বন্ধু তথাগতর সঙ্গে পোজ় দিলেন রাহুল এবং তাঁর বন্ধু  সন্দীপ্তা সেন। এই ফোটোসেশনের সময়ে অবশ্য প্রিয়ঙ্কা পার্টিতে এসে পৌঁছননি। তবে ছবির বহর দেখে প্রশ্ন উঠতেই পারে, বরফ কি গলতে শুরু করেছে?

তিক্ততা যে শুধু লোক দেখানো নয়, তা অবশ্য ঠারেঠোরে বুঝিয়ে দিলেন পরিচালক শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। তাঁর প্রাক্তন প্রযোজক অতনু রায়চৌধুরীর সঙ্গে ছবি তোলার প্রস্তাব দিতেই ‘ফোন এসেছে’ বলে শশব্যস্ত হয়ে পড়লেন। তার পরে অবশ্য আর তাঁকে পার্টিতে দেখাও গেল না!

ইশা, পাওলি, প্রিয়ঙ্কা

তবে পার্টি চুটিয়ে উপভোগ করেছেন অনেকেই। পার্টিতে এমন কেউ ছিলেন না, যাঁর সঙ্গে অভিনেত্রী ইশা সাহা কথা বলেননি। ডান্স ফ্লোরে পুরুষ বাহিনীর ভিড় ছিল বেশি। অঙ্কুশ, বনি, আদৃত, ওম সকলেই পরে নিয়েছিলেন পার্টি শু। নায়িকাদের মধ্যে রাজনন্দিনী পাল, সৌরসেনী মৈত্র আর মনামী ঘোষকেই শুধু দেখা গেল ডান্স ফ্লোর কাঁপাতে। পাওলি দাম এবং তাঁর স্বামী অর্জুন দেবের মন ছিল শুধু খোশ আড্ডায়। পানীয়ের গ্লাস হাতে পাওলির সঙ্গী কখনও ইশা, কখনও বা সৌরসেনী।

ডিনারেও মন ছিল বেশ কিছু সেলেবের। ঋতব্রত মুখোপাধ্যায় বেশ আয়েশ করেই ডিজ়ার্ট খাচ্ছিলেন। গৌরব চট্টোপাধ্যায়কে খাইয়ে দিচ্ছিলেন তাঁর প্রেমিকা দেবলীনা কুমার। তিন বন্ধু অঙ্কুশ, ঐন্দ্রিলা সেন এবং বিক্রম চট্টোপাধ্যায় একসঙ্গে এসেছিলেন পার্টিতে। এসেই অবশ্য তাঁরা ব্যস্ত হয়ে পড়েন ডিনারে।

ফিল্মি পার্টিতেও যে যাঁর ‘ফ্রেন্ডস সার্কল’-এ থাকতেই পছন্দ করেন। ছোট পর্দার ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়, সোনালি চৌধুরী, মনামী ঘোষ, সুমন বন্দ্যোপাধ্যায়রা যেমন একসঙ্গে আড্ডা দিচ্ছিলেন। অন্য দিকে লগ্নজিতা চক্রবর্তী, অনুপম রায়, পটাকেও একসঙ্গেই দেখা গিয়েছে। আবার অনেক বছরের বন্ধু অনন্যা চট্টোপাধ্যায় ও শিবপ্রসাদের সঙ্গে দেখা হতেই ছবি তুললেন সুদীপ্তা চক্রবর্তী।

পার্টিতে এ ভাবেই মেলে আপনজনেরা। আবার নেহাত প্রচারের জন্যই মিলে যায় অনেকে। হিসেব রাখে শুধু ক্যামেরার লেন্স।

ছবি: স্বপ্নিল সরকার

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন