• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

প্রয়াত অভিনেতা ফকিরদাস কুমার

1
উত্তমকুমারের সঙ্গে। ফাইল চিত্র

এক সময়ে বাংলা সিনেমায় বাড়ির বিশ্বস্ত পরিচারক, কিংবা পরিবারের লোক হিসাবে নিয়মিত দেখা যেত তাঁকে। সারা জীবনে প্রায় ১৪০টি সিনেমাতে অভিনয় করেছেন তিনি। পরিচিতি ছিল নাটক, যাত্রাশিল্পী হিসাবেও। বৃহস্পতিবার সকালে প্রয়াত হলেন বাংলা সিনেমার বর্ষীয়ান অভিনেতা ফকিরদাস কুমার। শেষের দিকে মেমারির সাতগেছিয়া ২ পঞ্চায়েত এলাকায় সেনপুর গ্রামের বাড়িতেই থাকতেন ৮৭ বছরের ওই অভিনেতা। প্রায় ২২ দিন লড়াইয়ের পরে, এ দিন বর্ধমানের একটি নার্সিংহোমে মারা যান তিনি।  

ছোটখাট চেহারার ফকিরবাবুর নেশা ছিল নাটকে অভিনয় করা। ধীরে ধীরে জায়গা পান বাংলা চলচ্চিত্রে। ষাটের দশক থেকে পরপর সিনেমা করেন তিনি। মৌচাক, বিকেলে ভোরের ফুল, রাতের রজনীগন্ধার মতো ১৪টি সিনেমায় উত্তমকুমারের সঙ্গেও দেখা গিয়েছে তাঁকে। গুরুদক্ষিণা, মন্দ মেয়ের উপাখ্যানের মতো সিনেমায় কৌতুক অভিনেতা হিসাবেও নাম কুড়িয়েছিলেন তিনি। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়, জহর রায়, সুচিত্রা সেন থেকে শুরু করে তাপস পাল, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়দের সঙ্গেও অভিনয় করেছেন তিনি।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, রেলে কাজ করতেন ফকিরবাবু। কিন্তু তাতে অভিনয়ে বিরতি পড়েনি। ফকিরবাবুর ছেলে দেবাশিস ও কৃষ্ণাশিস জানান, প্রত্যেক বছর উত্তমকুমারের জন্মদিনে ময়রা স্ট্রিটের বাড়িতে চালভাজা  আর নাড়ু নিয়ে যেতেন ফকিরদাস। যতদিন উত্তমকুমার বেঁচেছিলেন, সে রুটিনে কখনও ছেদ পড়েনি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন