Advertisement
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২
independence day

Independence Day: শুধু ভারতই নয়, ১৫ অগস্ট স্বাধীন হয়েছিল আরও ৫টি দেশ

শুধু ভারতই নয়, পৃথিবীর এমন আরও ৫টি দেশ রয়েছে, যারা ১৫ অগস্ট দিনটিকেই স্বাধীনতা দিবস হিসেবে উদযাপন করে।

সংগৃহীত প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ১২ অগস্ট ২০২২ ০৭:১১
Share: Save:

ব্রিটিশদের হাতে প্রায় ২০০ বছর শোষিত হওয়ার পরে ঔপনিবেশিক শাসন থেকে মুক্তি পেয়েছিল ভারত। ১৯৪৭ সালের ১৫ অগস্ট দেশ জুড়ে মহাসমারোহে উদযাপিত হয়েছিল স্বাধীনতা দিবস। এর পরে প্রতি বছর ১৫ অগস্টে সেজে ওঠে গোটা ভারত। প্রত্যেক দেশবাসী পালন করে স্বাধীনতা দিবস।

তবে শুধু ভারতই নয়, পৃথিবীর এমন আরও ৫টি দেশ রয়েছে, যারা ১৫ অগস্ট দিনটিকেই স্বাধীনতা দিবস হিসেবে উদযাপন করে।

এই দেশগুলি হল — উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া, বাহরিন, লিচটেনস্টাইন, রিপাবলিক অফ কঙ্গো।

ভারত

১৯৪৭ সালের ১৫ অগস্ট ভারতকে মুক্তি দেয় ব্রিটিশরা। তবে ভারত ছাড়ার আগে তারা ভারতকে দু'‌টি স্বাধীন রাষ্ট্রে বিভক্ত করে দিয়ে যায়। একটি হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ ভারত এবং অন্যটি মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ তথা পাকিস্তান। ভারতের স্বাধীনতা দিবসের একদিন আগে অর্থাৎ ১৪ অগস্ট পাকিস্তানে স্বাধীনতা দিবস পালন করা হয়।

উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়া

১৯৪৫ সালের ১৫ অগস্ট মুক্তি স্বাধীনতার মুখ দেখে উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়া। প্রায় ৩৫ বছর পরে মার্কিন ও সোভিয়েত বাহিনী কোরিয়ান উপদ্বীপে জাপানের দখল ছেড়ে দেয়। ফলে জাপানি ঔপনিবেশিকতা কাটিয়ে স্বাধীনতা লাভ করে কোরিয়া। পরবর্তীকালে কোরিয়া উত্তর ও দক্ষিণ, দু’টি আলাদা রাষ্ট্রে বিভক্ত হয়ে যায়। তবুও প্রতি বছর ১৫ অগস্ট স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করে দুই দেশ। এই দিনটি দুই দেশের কাছেই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি দিন; দুই দেশেরই বিশেষ ছুটির দিন। এই সাধারণ গণ ছুটির দিনটিকে কোরিয়ায় ‘জাতীয় মুক্তি দিবস’ নামে অভিহিত করা হয়। কোরিয়ান ভাষায় এই দিনটিকে বলা হয় ‘গওয়াংবোকজিয়ল’। যার অর্থ ‘আলোর পুনরুদ্ধার’। স্বাধীনতা প্রাপ্তির প্রায় তিন বছর পর স্বাধীন কোরিয়ান সরকার গঠন করা হয়।

রিপাবলিক অব কঙ্গো

আফ্রিকার মহাদেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শহর হল রিপাবলিক অব কঙ্গো। দীর্ঘ ৮০ বছর ফ্রান্সের উপনিবেশ থাকার পরে ১৯৬০ এর ১৫ই অগস্ট এই দেশটি স্বাধীনতা লাভ করে। রিপাবলিক অব কঙ্গোর রাজধানী হল ব্রাজাভিল্লি। বর্তমানে এই দেশের জনসংখ্যা প্রায় ৬০ লক্ষ।

বাহারিন

ভারতের মতো এই দেশটিও এক সময় ধরে ইংরেজদের অধীনে ছিল। ১৯৭১ এর ১৫ অগস্ট বাহারিন ইংরেজদের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভ করে। তবে শুধু ব্রিটিশরাই নয়, তারও আগে পর্তুগাল ও আরবের উপনিবেশ ছিল এই দেশটি। বলা হয়, দিলমুন সভ্যতার অন্যতম প্রাচীন নিদর্শন কেন্দ্র বাহারিন। এই দেশের বেশিরভাগ বাসিন্দাই ইসলাম ধর্মাবলম্বী। দেশের জনসংখ্যা বর্তমানে প্রায় ১৯ লক্ষ। এই দেশটিকে ‘মুক্তোর দেশ’ হিসেবেও অভিহিত করা হয়েথে। বাহারিনের রাজধানী শহর হল মানামা।

লিচটেনস্টাইন

বিশ্বের সব থেকে ছোট দেশ হিসেবে ছ’নম্বরে রয়েছে লিচটেনস্টাইন। ১৮৬৬ এর ১৫ অগস্ট জার্মানির কাছ থেকে মধ্য ইউরোপের এই দেশটি স্বাধীনতা লাভ করে। দেশটির পশ্চিম ও দক্ষিণ সীমান্তে সুইজারল্যান্ড এবং উত্তর ও পূর্ব সীমান্তে রয়েছে অস্ট্রিয়া। দেশটির আয়তন মাত্র ১৬০ বর্গ কিলোমিটার। জনসংখ্যা প্রায় চল্লিশ হাজার । এই দেশের রাজধানী হল ভাদুজ। এ দিন লিচটেনস্টাইনের রাজপরিবারের সঙ্গে খানাপিনার উৎসবে মেতে ওঠেন দেশের বাসিন্দারা।

এই প্রতিবেদনটি সংগৃহীত এবং ‘সাধের স্বাধীনতা’ ফিচারের একটি অংশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.